সোমবার ২২ এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৯ বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

অভিহিত মূল্যের নিচে ৩২, রিজার্ভ ঘাটতিতে ১৯

মিউচুয়াল ফান্ডে দুঃসময়

আদম মালেক   |   বুধবার, ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২১   |   প্রিন্ট   |   765 বার পঠিত

মিউচুয়াল ফান্ডে দুঃসময়

কোনো উৎসাহ-উদ্দীপনা, প্রণোদনা মিউচুয়াল ফান্ডগুলোকে লাভজনক দূরে থাক লোকসানের গহ্বর থেকেই টেনে তুলতে পারছে না। ফলে ৮৬ শতাংশ মিউচুয়াল ফান্ডে বিনিয়োগকারী এখনো বিপুল অঙ্কের লোকসানের বোঝা বয়ে বেড়াচ্ছে। ৩৭টি মিউচুয়াল ফান্ডের মধ্যে ৩২টির দর অভিহিত মূল্যের নিচে। আবার কোনো কোনোটির দর অভিহিত মূল্যের অর্ধেকের নিচে। এ ছাড়া রিজার্ভ ঘাটতিতে রয়েছে ১৯টি ফান্ড। বেশিরভাগ মিউচুয়াল ফান্ড সমাপ্ত বছরে লভ্যাংশ দিতে পারেনি। কোনো কোনোটি দিয়েছে স্টক ডিভিডেন্ড। গতকালও ২৬টি ফান্ডের দর কমেছে, একটিরও বাড়েনি। এ নিয়ে বিনিয়োগকারীদের মাঝে অসন্তোষের অন্ত নেই।

এদিকে মিউচুয়াল ফান্ডে আশা জাগাতে অতীতে প্রভিশনে ছাড় দেয়া হয়েছে। সম্প্রতি মার্জিন ঋণ প্রদানের জটিলতাও দূর করা হয়েছে। কিন্তু তাতে বাজারে কোনো ইতিবাচক প্রভাব পড়েনি। অর্থনীতিবিদরা বলছেন, মিউচুয়াল ফান্ডের এভাবে পতন অনাকাক্সিক্ষত। তাদের মধ্যে সততা ও দক্ষতার অভাব।

পুুঁজিবাজার বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক আবু আহমেদ বলেন, আমাদের পুঁজিবাজারে মিউচুয়াল ফান্ড ব্যবস্থাপকদের মধ্যে সততা ও দক্ষতার অভাব রয়েছে। তাদের অনেকের দক্ষতা সাধারণ বিনিয়োগকারীদের চেয়েও কম। এ কারণে ৩২টি মিউচুয়াল ফান্ডের দর অভিহিত মূল্যের নিচে। এ মুহূর্তে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিএসইসির উচিত ফান্ডগুলো ভেঙে দিয়ে বিনিয়োগকারীদের মধ্যে বণ্টন করে দেয়।

বিনিয়োগকারীদের অভিযোগ, মিউচুয়াল ফান্ডের বিনিয়োগের ক্ষেত্রে ব্যবস্থাপনা প্রতিষ্ঠানগুলো তথ্য গোপন করে থাকে। শেয়ারবাজারের বাইরে কোথাও বিনিয়োগ থাকলে সেটা সুনির্দিষ্টভাবে বিস্তারিত জানানো হয় না। এমনকি পোর্টফোলিওতে যেসব শেয়ারে বিনিয়োগের কথা বলা হয়, সেসব শেয়ারে বিনিয়োগ থাকে কি না সেটা নিয়ন্ত্রক সংস্থাকে তদন্ত করার দাবি জানিয়ে আসছে বিনিয়োগকারীরা।

পুঁজিবাজার বিশ্লেষকরা বলছেন, এ খাতে স্বচ্ছতা বাড়ানো জরুরি। সে জন্য এ খাতের কিছু সংস্কার করা দরকার। বর্তমানে মোট ফান্ডের ২.৫ শতাংশ কমিশন দেয়া হয় ব্যবস্থাপনা প্রতিষ্ঠানকে। সেখানে ওই ফান্ডের লাভ-ক্ষতির কোনো শর্ত নেই। ফলে ফান্ড ব্যবস্থাপনা কোম্পানির দায়বদ্ধতা অনেক কম থাকে। এখানে প্রয়োজনে তাদের কমিশন দেয়ার ক্ষেত্রে শর্ত হিসাবে লাভ-ক্ষতির হিসাব রাখা যেতে পারে। আবার ফান্ড ব্যবস্থাপকদের কে তদারকি করবে, সেটাও ঠিক করা নেই। তারা শুধু এক এক প্রান্তিকে তাদের এনএভি প্রকাশ করে। আর বিএসইসিতে রিপোর্ট জমা করে। এর বাইরে কোনো ধরনের তদারকি নেই।

পুঁজিবাজার বিশ্লেষকরা বলছেন, ফান্ড ম্যানেজারদের ব্যর্থতার কারণে মিউচুয়াল ফান্ডের এ অবস্থা। ফান্ড ম্যানেজারের দায়িত্বে যারা আছেন, তাদের অধিকাংশই অদক্ষ অথবা অসৎ। বিনিয়োগকারীদের কথা চিন্তা না করে নিজের স্বার্থ হাসিলের জন্য তারা অনৈতিকভাবে ব্যক্তিগত ঋণ দিচ্ছেন।

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ সূত্রে জানা যায়, গত সপ্তাহের শেষদিকে অভিহিত মূল্যের নিচে লেনদেন হওয়া মিউচুয়াল ফান্ডগুলোর মধ্যে ফার্স্ট জনতা মিউচুয়াল ফান্ড ৫ টাকা ৭০ পয়সা, এবি ব্যাংক ফার্স্ট মিউচুয়াল ফান্ড ৫ টাকা ৯০ পয়সা, এআইবিএল ফার্স্ট ইসলামিক মিউচুয়াল ফান্ড ৮ টাকা ৩০ পয়সা, এটিসিএসএল গ্রোথ ফান্ড ৮ টাকা ৬০ পয়সা, সিএএমপি বিডিবিএল মিউচুয়াল ফান্ড ৮ টাকা ৬০ পয়সা, ডিবিএইচ ফার্স্ট মিউচুয়াল ফান্ড ৬ টাকা ৯০ পয়সা, ইবিএল ফার্স্ট মিউচুয়াল ফান্ড ৬ টাকা ৪০ পয়সা, ইবিএল এনআরবি মিউচুয়াল ফান্ড ৫ টাকা ৫০ পয়সা।

এক্সিম ব্যাংক ফার্স্ট মিউচুয়াল ফান্ড ৫ টাকা ৮০ পয়সা, এফবিএফআই ফান্ড ৪ টাকা ৯০ পয়সা, গ্রিন ডেল্টা মিউচুয়াল ফান্ড ৬ টাকা ৯০ পয়সা, আইসিবি থার্ড এনআরবি মিউচুয়াল ফান্ড ৬ টাকা, আইসিবি ফার্স্ট অগ্রণী ব্যাংক মিউচুয়াল ফান্ড ৭ টাকা ৫০ পয়সা, আইসিবি ২য় মিউচুয়াল ফান্ড ৭ টাকা ৮০ পয়সা, আইসিবিইপি মিউচুয়াল ফান্ড ৬ টাকা ৯০ পয়সা, আইসিবি সোনালী ব্যাংক ফার্স্ট মিউচুয়াল ফান্ড ৭ টাকা ৭০ পয়সা, আইএফআইসি ফার্স্ট মিউচুয়াল ফান্ড ৫ টাকা ৯০ পয়সা, আইএফআইএল ইসলামিক মিউচুয়াল ফান্ড ৬ টাকা ৩০ পয়সা, এলআর গ্লোবাল মিউচুয়াল ফান্ড ৬ টাকা ৭০ পয়সা, এমবিএল ফার্স্ট মিউচুয়াল ফান্ড ৭ টাকা ৫০ পয়সা।

এনসিসি ব্যাংক ফার্স্ট মিউচুয়াল ফান্ড ৯ টাকা, ফিনিক্স ফিন্যান্স ফার্স্ট মিউচুয়াল ফান্ড ৭ টাকা ৩০ পয়সা, পিএইচপি ফার্স্ট মিউচুয়াল ফান্ড ৫ টাকা ২০ পয়সা, পপুলার লাইফ ফার্স্ট মিউচুয়াল ফান্ড ৪ টাকা ৯০ পয়সা, প্রাইম ব্যাংক ফার্স্ট মিউচুয়াল ফান্ড ৬ টাকা ৭০ পয়সা, এসইএমএল এফবিএলএল গ্রোথ ফান্ড ৭ টাকা ৮০ পয়সা, এসইএমএল আইবিবিএলএল শরিয়াহ্ ফান্ড ৮ টাকা ৯০ পয়সা, এসএমইএল-এলই ম্যানেজমেন্ট ফান্ড ৭ টাকা ৮০ পয়সা, ট্রাস্ট ব্যাংক ফার্স্ট মিউচুয়াল ফান্ড ৫ টাকা ৮০ পয়সা, ভ্যানগার্ড বিডি ফিন্যান্স ফার্স্ট মিউচুয়াল ফান্ড ৭ টাকা ৬০ পয়সা, ভ্যানগার্ড রুপালি ব্যাংক ব্যালেন্স্ড ফান্ডের কোনো লেনদেন হয়নি।

Facebook Comments Box
(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});

Posted ১১:১৬ পূর্বাহ্ণ | বুধবার, ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২১

bankbimaarthonity.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আর্কাইভ ক্যালেন্ডার

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২
১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭২৮২৯৩০  
প্রধান সম্পাদক: মোহাম্মাদ মুনীরুজ্জামান
নিউজরুম:

মোবাইল: ০১৭১৫-০৭৬৫৯০, ০১৮৪২-০১২১৫১

ফোন: ০২-৮৩০০৭৭৩-৫, ই-মেইল: bankbima1@gmail.com

সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক কার্যালয়: পিএইচপি টাওয়ার, ১০৭/২, কাকরাইল, ঢাকা-১০০০।