• প্রথমার্ধে লোকসান ১৫০ কোটি টাকা

    আইসিবির কর-পরবর্তী মুনাফায় ধস

    বিবিএনিউজ.নেট | ৩১ জানুয়ারি ২০২০ | ৯:৩১ পূর্বাহ্ণ

    আইসিবির কর-পরবর্তী মুনাফায় ধস
    apps

    পুঁজিবাজার মন্দার কারণে মূলধনি মুনাফা কমার পাশাপাশি সুদ আয় কমে যাওয়ার প্রভাবে রাষ্ট্রায়ত্ত বিনিয়োগ প্রতিষ্ঠান ইনভেস্টমেন্ট করপোরেশন অব বাংলাদেশ লিমিটেডের (আইসিবি) কর-পরবর্তী মুনাফায় ধস নেমেছে। চলতি ২০১৯-২০ হিসাব বছরের প্রথমার্ধে (জুলাই-ডিসেম্বর) আইসিবির সমন্বিতভাবে ১৫০ কোটি টাকা কর-পরবর্তী লোকসান হয়েছে। অবশ্য সাবসিডিয়ারি ছাড়া এককভাবে আইসিবির লোকসানের পরিমাণ আরো বেশি ১৬৬ কোটি টাকা।

    এ প্রসঙ্গে আইসিবির ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. আবুল হোসেন বলেন, পুঁজিবাজারকে সাপোর্ট দেয়ার জন্য বিভিন্ন ব্যাংক ও সরকারি প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে সুদের বিনিময়ে ১০ হাজার ৭০০ কোটি টাকার তহবিল এনে পুঁজিবাজারে বিনিয়োগ করেছে আইসিবি। অন্যদিকে গত বছর পুঁজিবাজারের মন্দার কারণে এখান থেকে মূলধনি আয় কমে গেছে। কিন্তু বিভিন্ন ব্যাংক ও সরকারি প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে আনা তহবিলের বিপরীতে আমাদের সুদ ঠিকই দিতে হচ্ছে। চলতি হিসাব বছরের প্রথমার্ধে আইসিবির সুদ বাবদ ব্যয় আগের তুলনায় বেড়েছে। আবার বিভিন্ন ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানে আইসিবি গচ্ছিত যেসব আমানত ছিল, সেগুলো তুলে এনে পুঁজিবাজারকে সাপোর্ট দেয়ার জন্য বিনিয়োগ করতে হয়েছে। এতে আমাদের সুদ বাবদ আয়ও কমে গেছে। পুঁজিবাজারকে সাপোর্ট দেয়ার প্রয়োজন না হলে আমাদের লোকসান হতো না। এ পরিস্থিতি থেকে উত্তরণে সরকারের কাছে আমরা দুই ধরনের তহবিল চেয়েছি। এর মধ্যে আইসিবির জন্য স্বল্প সুদে ৫ হাজার কোটি টাকার তহবিল চাওয়া হয়েছে। এ তহবিল থেকে পুঁজিবাজারে বিনিয়োগের পাশাপাশি ঋণ পরিশোধে ব্যয় করা হবে। আর শুধু পুঁজিবাজারকে সাপোর্ট দেয়ার জন্য ৫ হাজার কোটি টাকার আরেকটি তহবিল চাওয়া হয়েছে। এ তহবিলে পুরো টাকাই পুঁজিবাজারে বিনিয়োগ করা হবে। আইসিবি শুধু তহবিলটি ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে থাকবে বলে জানান তিনি।

    Progoti-Insurance-AAA.jpg

    প্রথমার্ধের অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনায় দেখা যায়, এ সময় আইসিবির সুদ বাবদ আয় হয়েছে ১৫৭ কোটি টাকা, যা আগের বছরের একই সময়ে ছিল ১৭৪ কোটি টাকায়। অন্যদিকে এ সময়ে আইসিবির সুদ বাবদ ব্যয় দাঁড়িয়েছে ৫৭৬ কোটি টাকায়, এর আগের বছরের একই সময়ে যা ছিল ৪৯২ কোটি টাকা। লভ্যাংশ বাবদ আয় কিছুটা বাড়লেও চলতি হিসাব বছরের প্রথমার্ধে শেয়ারে বিনিয়োগের বিপরীতে মূলধনি মুনাফা হয়েছে ৮৬ কোটি টাকা, যেখানে এর আগের বছরের একই সময়ে মূলধনি মুনাফা ছিল ১৮৩ কোটি টাকা। তাছাড়া এ সময়ে ফি, কমিশন ও সার্ভিস চার্জ বাবদ আইসিবির আয় হয়েছে ৬৭ কোটি টাকা, যা এর আগের বছরের একই সময়ে ছিল ৭৫ কোটি টাকায়।

    চলতি হিসাব বছরের প্রথমার্ধে আইসিবির ১০৩ কোটি টাকা পরিচালন লোকসান হয়েছে, যেখানে এর আগের বছরের একই সময়ে পরিচালন মুনাফা ছিল ৮৬ কোটি টাকা। আলোচ্য সঞ্চিতি বাবদ প্রতিষ্ঠানটি ৩৬ কোটি টাকা সংরক্ষণ করেছে, যেখানে এর আগের বছরে সঞ্চিতির পরিমাণ ছিল ১৪ কোটি টাকা। কর পরিশোধের পর চলতি হিসাব বছরের প্রথমার্ধে আইসিবির ১৫০ কোটি টাকা লোকসান হয়েছে, যেখানে এর আগের হিসাব বছরের একই সময়ে মুনাফা হয়েছিল ৪৩ কোটি টাকা। আলোচ্য সময়ে প্রতিষ্ঠানটির শেয়ারপ্রতি লোকসান (ইপিএস) হয়েছে ১ টাকা ৯৬ পয়সা, যেখানে এর আগের বছর আয় হয়েছিল ৫৭ পয়সা।


    ৩১ ডিসেম্বর ২০১৯ শেষে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের শেয়ারে আইসিবির বিনিয়োগের বাজারমূল্য দাঁড়িয়েছে ৯ হাজার ৭৪১ কোটি টাকা, যেখানে ৩০ জুন ২০১৯ শেষে তা ছিল ১১ হাজার ৬০৭ কোটি টাকা।

    Facebook Comments Box

    বাংলাদেশ সময়: ৯:৩১ পূর্বাহ্ণ | শুক্রবার, ৩১ জানুয়ারি ২০২০

    bankbimaarthonity.com |

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    রডের দাম বাড়ছে

    ১৩ জানুয়ারি ২০১৯

    Archive Calendar

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩১৪১৫
    ১৬১৭১৮১৯২০২১২২
    ২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
    ৩০৩১  
  • ফেসবুকে ব্যাংক বীমা অর্থনীতি