• শিরোনাম

    ডেল্টা লাইফ নিয়ে বীমা গ্রাহকদের অভিযোগ

    আবেদ হোল্ডিংসের ভবন ক্রয়ে কম টাকা প্রদানের অভিযোগ

    নিজস্ব প্রতিবেদক | ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০২১ | ১১:০৪ পূর্বাহ্ণ

    আবেদ হোল্ডিংসের ভবন ক্রয়ে কম টাকা প্রদানের অভিযোগ

    অনিয়ম দুর্নীতির দায়ে পুঁজিবাজারভুক্ত বীমা খাতের প্রতিষ্ঠান ডেল্টা লাইফ ইন্স্যুরেন্সে প্রশাসক নিয়োগ করেছে বীমা নিয়ন্ত্রক সংস্থা আইডিআরএ। মূলত কোম্পানিটির বিরুদ্ধে নিতে শত শত গ্রাহক-বিনিয়োগকারীসহ কোম্পানির সাবেক এক চেয়ারম্যান আবেদন জানিয়েছিলেন আইডিআরএর কাছে। এর প্রেক্ষিতে নিয়ন্ত্রক সংস্থা শোকজ নোটিশ প্রদান করে। কিন্তু জবাবে যথাযথ কারণ দেখাতে ব্যর্থ হওয়ায় কোম্পানি বিরুদ্ধে এমন ব্যবস্থা নিয়েছে আইডিআরএ। সংশ্লিষ্ট সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

    এদিকে প্রশাসক নিয়োগের অনুরোধ আইডিআরএতে পাঠানো কয়েকজন গ্রাহক ও কোম্পানির সাবেক চেয়ারম্যান সৈয়দ মোয়াজ্জেম হুসাইনের চিঠি এই প্রতিবেদকের হাতে আসে। মোয়াজ্জেম হুসাইনের চিঠি নিয়ে ইতোপূর্বেও গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে। তবে বিনিয়োগকারীদের চিঠিতে প্রায় ৮টি বিষয় নিয়ে অভিযোগ জানানো হয়। পাশাপাশি প্রতিষ্ঠানটির ভবন ক্রয়ে বিজয় নগরের ডিআর টাওয়ার নির্মান প্রতিষ্ঠান আবেদ হোল্ডিংসের সাথে করা চুক্তি ভঙ্গ করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

    Progoti-Insurance-AAA.jpg

    আইডিআরএর কাছে যেসব গ্রাহক ডেল্টা লাইফের বিরুদ্ধে অভিযোগ জানিয়েছেন তাদের মধ্যে কয়েকজন হলে রিংকু রঞ্জন দে (পলিসি নং- ০১২০০০১৪১৯১-৭), মুকুল চাকমা (পলিসি নং- ১০০০০০১০৮১৮৬), মিলন হোসেন (পলিসি নং- ১০০০০০১০৮০৮৩), মোহাম্মদ মোজাম্মেল হোসেন খান (পলিসি নং- ০১২০০০১৮৭১১-৯) এবং মানিক রতন চাকমা (পলিসি নং- ০১২০০০১৪১৮৭৩)।

    এসব গ্রাহকদের পাঠানো চিঠিতে যেসব অভিযোগ তোলা হয় তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো- জিনিসপত্র ক্রয় ছাড়াই ভূয়া বিল বানিয়ে টাকা আত্মসাৎ, কোম্পানির নাম ব্যবহার করে ব্যক্তিগত সুবিধা গ্রহন, করোনাকালে কার্যক্রম কম হলেও ব্যয় বেশি করাসহ বিভিন্ন অনিয়ম ও দুর্নীতি, অনৈতিক আর্থিক সুবিধা গ্রহনে প্রচলিত সুদের চেয়ে কম সুদে ব্যাংকে এফডিআর রাখা, কোম্পানির টাকায় পরিবারের জিনিসপত্র ক্রয় ও ডেকোরেশন করা, নিজের প্রয়োজনে আইনের অপব্যবহার, পারিবারিক কাজে কোম্পানির গাড়ি ব্যবহার, দাবী ও মেয়াদোত্তীর্ণ টাকা বীমা গ্রাহককে বিলম্ব প্রদানের মাধ্যমে ভোগান্তিতে ফেলা, ব্যক্তিগত কাজে কোম্পানির টাকায় বারবার বিদেশ ভ্রমন এবং বিদেশী লোক উচ্চ বেতনে নিয়োগ দেখিয়ে অধিকাংশ অর্থ আত্মসাৎ।


    এদিকে ডেল্টা লাইফ ইন্স্যুরেন্সের বিরুদ্ধে ব্যবসায়িক চুক্তি লঙ্ঘনের অভিযোগ তুলেছে নির্মানকারী প্রতিষ্ঠান আবেদ হোল্ডিংস লিমিটেড। আইডিআরএর কাছে পাঠানো এক চিঠিতে প্রতিষ্ঠানটি এ অভিযোগ তুলে ধরেন। এতে বলা হয়, ২০১২ সালের ১৪ ফেব্রুয়ারি বিজয় নগরের ডিআর টাওয়ারের নয়, দশ ও এগারো তলা ভবন ক্রয় করতে নির্মানকারী প্রতিষ্ঠান আবেদহোল্ডিংসের সাথে চুক্তিবদ্ধ হয়। যার বায়না চুক্তি হয় ২০১২ সালের ২০ ফেব্রুয়ারি। পরবর্তীতে ২০১৩-১৪ সালে রাজনৈতিক অস্থিতিশীলতার মাঝে নির্মান খাত স্থবির হয়ে পড়ে। কিন্তু এর মাঝেও চুক্তির শর্তবহাল রেখে যথা সময়ে ভবন হস্তান্তরে অর্থ প্রদানে বারবার তাগাদা দেয় আবেদ হোল্ডিংস। কিন্তু এতে কর্ণপাত করেনি বীমা প্রতিষ্ঠানটি। ফলে নির্মান কাজে ব্যঘাত সৃষ্টি হয় বলে জানায় নির্মান প্রতিষ্ঠানটি। এর ধারাবাহিকতায় নির্ধারিত সময়ের চেয়ে প্রায় ১৯ মাস বিলম্ব হয় ভবন হস্তান্তরে। এ বিলম্বের দায়ে আবেদ হোল্ডিংসকে প্রায় ৭ কোটি ৫৭ লাখ টাকা কম প্রদান করে।

    এ বিষয়ে আবেদ হোল্ডিংসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আবু খালিদ মোহাম্মদ বরকতউল্লাহ জানান, ফ্লোর হস্তান্তরে সাড়ে সাত কোটি টাকা কেটে রাখা সম্পূর্ণ এক তরফা ও অযৌক্তিক। কেননা, ২০১৩-১৪ সালে রাজনৈতিক অস্থিরতার কারণে রিয়েল এস্টেট প্রতিনিধিত্বকারী প্রতিষ্ঠান রিহ্যাবের পক্ষ থেকে দুই দফায় গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয় থেকে সময় নেয়া হয়। এর আওতায় পরবর্তী দুই বছর পর্যন্ত বিলম্বে ফ্ল্যাট হস্তান্তরে ক্রেতারা কোন ক্ষতিপূরণ দাবী করতে পারবে না। তাই সে মোতাবেক এ টাকা কাটার সুযোগ নেই। বিষয়টি মিমাংসা করতে আইডিআরএর সহযোগীতা চেয়েছি।

    Facebook Comments

    বাংলাদেশ সময়: ১১:০৪ পূর্বাহ্ণ | রবিবার, ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০২১

    bankbimaarthonity.com |

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২
    ১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
    ২০২১২২২৩২৪২৫২৬
    ২৭২৮২৯৩০৩১  
  • ফেসবুকে ব্যাংক বীমা অর্থনীতি