শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ১১ ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

ইউনিপেটুইউর চেয়ারম্যান এমডির ১২ বছর কারাদণ্ড

  |   শুক্রবার, ২৫ জানুয়ারি ২০১৯   |   প্রিন্ট   |   1085 বার পঠিত

ইউনিপেটুইউর চেয়ারম্যান এমডির ১২ বছর কারাদণ্ড

অর্থপাচারের একটি মামলায় মাল্টিলেভেল মার্কেটিং কোম্পানি ইউনিপেটুইউ বাংলাদেশের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) মোহাম্মদ মুনতাসির হোসেনসহ ছয়জনের ১২ বছর করে কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। গতকাল ঢাকার ৩ নম্বর বিশেষ জজ আদালতের বিচারক আবু সৈয়দ দিলজার হোসেন এ রায় ঘোষণা করেন।

দণ্ডিত অন্য আসামিরা হলেন প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান মো. শহিদুজ্জামান শাহীন, নির্বাহী পরিচালক মাসুদুর রহমান, জিএম জামশেদ রহমান, উপদেষ্টা মঞ্জুর এহসান চৌধুরী ও ইউনিল্যান্ড লিমিটেডের পরিচালক এইচএম আরশাদ উল্লাহ। এদের মধ্যে শহিদুজ্জামান শাহীন, মাসুদুর রহমান ও মঞ্জুর এহসান চৌধুরী বর্তমানে পলাতক।

গতকাল রায় ঘোষণাকালে কারাগারে থাকা দুই আসামি মুনতাসির হোসেন ও জামশেদ রহমান এবং জামিনে থাকা এইচএম আরশাদ আদালতে উপস্থিত ছিলেন। রায় ঘোষণার পর আদালত আরশাদের জামিন বাতিল করে তাকে দণ্ড পরোয়ানামূলে জেলহাজতে প্রেরণ করেন।

রায়ে আসামিদের কারাদণ্ডের পাশাপাশি ২ হাজার ৭০২ কোটি ৪১ লাখ ১১ হাজার ৭৮৪ টাকা অর্থদণ্ড দেয়া হয়েছে, যা রাষ্ট্র পাবে। ১৮০ দিনের মধ্যে অর্থদণ্ডের টাকা রাষ্ট্রের অনুকূলে জমা প্রদানের জন্য আসামিদের নির্দেশ দেয়া হয়েছে। এছাড়া রায়ে মামলাসংক্রান্ত বিভিন্ন হিসাবে অবরুদ্ধ থাকা ৪২০ কোটি ১৪ লাখ ২৯ হাজার ৬৬৩ টাকা রাষ্ট্রের অনুকূলে বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে। এছাড়া মামলার চার্জশিটে উল্লিখিত ইউনিপেটুইউ বাংলাদেশ লিমিটেড নামীয় এবং আসামিদের দ্বারা পরিচালিত সব সম্পত্তি রাষ্ট্রের অনুকূলে বাজেয়াপ্ত করার নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

আসামিপক্ষের আইনজীবী ফরহাদ হোসেন নিয়ন জানান, মাল্টিলেভেল মার্কেটিং কোম্পানি ইউনিপেটুইউ বাংলাদেশের বিরুদ্ধে সারা দেশে ১৪৫টি মামলা করা হয়। এরই মধ্যে চারটি মামলায় আসামিরা খালাস পেয়েছেন। আর পঞ্চম মামলায় তাদের সাজা হয়েছে।

আদালত সূত্রে জানা যায়, অবৈধভাবে প্রায় ১ হাজার ৩৫০ কোটি টাকা পাচারের অভিযোগে ২০১১ সালের ২৫ জানুয়ারি দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) সহকারী পরিচালক তৌফিকুল ইসলাম বাদী হয়ে শাহবাগ থানায় মামলাটি করেন। মামলাটি তদন্ত করে ওই বছরের ২২ জুন আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন তিনি। ২০১৫ সালের ৬ জুলাই আসামিদের বিরুদ্ধে চার্জ গঠন করেন আদালত। মামলাটিতে চার্জশিটভুক্ত ২৭ জন সাক্ষীর মধ্যে ২৩ জনের সাক্ষ্য গ্রহণ করেন আদালত।

Facebook Comments Box
(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});

Posted ৩:৫৩ অপরাহ্ণ | শুক্রবার, ২৫ জানুয়ারি ২০১৯

bankbimaarthonity.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আর্কাইভ ক্যালেন্ডার

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯  
প্রধান সম্পাদক: মোহাম্মাদ মুনীরুজ্জামান
নিউজরুম:

মোবাইল: ০১৭১৫-০৭৬৫৯০, ০১৮৪২-০১২১৫১

ফোন: ০২-৮৩০০৭৭৩-৫, ই-মেইল: bankbima1@gmail.com

সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক কার্যালয়: পিএইচপি টাওয়ার, ১০৭/২, কাকরাইল, ঢাকা-১০০০।