• সালফিউরিক অ্যাসিড ইউনিট-২ উদ্বোধন

    ওয়াটার বার্ষিক উৎপাদন সক্ষমতা ৪৮ হাজার টনে উন্নীত

    বিবিএনিউজ.নেট | ০৩ মার্চ ২০১৯ | ৬:১৪ অপরাহ্ণ

    ওয়াটার বার্ষিক উৎপাদন সক্ষমতা ৪৮ হাজার টনে উন্নীত
    apps

    ওয়াটা কেমিক্যালস লিমিটেডের দ্বিতীয় ইউনিটের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন হয়েছে। বছরে ৩০ হাজার টন সালফিউরিক অ্যাসিড উৎপাদনে সক্ষম এ প্লান্ট কোম্পানির বার্ষিক উৎপাদন সক্ষমতা ৪৮ হাজার টনে উন্নীত করেছে।

    নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলার মুড়াপাড়া এলাকায় শনিবার ওয়াটা কেমিক্যালের কারখানায় সালফিউরিক অ্যাসিড ইউনিট-২ উদ্বোধন করেন বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী।

    Progoti-Insurance-AAA.jpg

    মন্ত্রী বলেন, বর্তমান সরকার শিল্পের উন্নয়নে সম্ভাব্য সব চেষ্টা করে যাচ্ছে। বাংলাদেশ এরই মধ্যে মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হয়েছে, আর বাংলাদেশকে উন্নত দেশের সারিতে নিয়ে যেতে হলে এর অর্থনৈতিক উন্নয়ন ঘটানোর কোনো বিকল্প নেই। এজন্য আমাদের শিল্পায়ন করতে হবে। এ সময় ওয়াটা কেমিক্যালসের কারখানার প্রশংসা করেন তিনি।

    অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন জামালপুর-৫ আসনের সংসদ সদস্য ইঞ্জিনিয়ার মোজাফ্ফর হোসেন, রূপগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ শাহজাহান ভুঁইয়া, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান সৈয়দা ফেরদৌসী আলম নীলা, মুড়াপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান তোফায়েল আহমেদ আলমাছ, ইনভেস্টমেন্ট করপোরেশন অব বাংলাদেশের উপব্যবস্থাপনা পরিচালক ও ওয়াটা কেমিক্যালস কোম্পানি লিমিটেডের চেয়ারম্যান মোসাদ্দেক উল আলম, কোম্পানির ব্যবস্থাপনা পরিচালক নজরুল ইসলাম, পরিচালক এএইচএম আব্দুল্লাহ, পরিচালক মাহমুদুল হাসান, পরিচালক সুব্রত পাল, জিয়াউল হক, প্রধান অর্থ কর্মকর্তা আলী আহসানসহ কোম্পানির বিভিন্ন স্তরের কর্মকর্তারা।


    প্রসঙ্গত, আশির দশকে যাত্রা করা কোম্পানিটি নতুন শতকের প্রথম দশকে এসে ব্যবসায় প্রতিকূল অবস্থায় পড়ে। তবে বর্তমান পর্ষদ ও ম্যানেজমেন্টের অধীনে দ্রুতই ব্যবসায় ঘুরে দাঁড়াতে সক্ষম হয় তারা। ব্যবসায় অংশীদার হিসেবে সরকারের বিনিয়োগ প্রতিষ্ঠান আইসিবির সহযোগিতা এ প্রক্রিয়া আরো বেগবান করেছে বলে জানিয়েছেন এর কর্মকর্তারা।

    ৩০ জুন ২০১৮ সমাপ্ত হিসাব বছরের জন্য ১০ শতাংশ নগদ ও ৩০ শতাংশ স্টক লভ্যাংশ দিয়েছে ওয়াটা কেমিক্যালস। সমাপ্ত হিসাব বছরে এর শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৫ টাকা ৫১ পয়সা এবং শেয়ারপ্রতি নিট সম্পদমূল্য (এনএভিপিএস) ৭৬ টাকা ৫৫।

    চলতি হিসাব বছরের প্রথমার্ধে (জুলাই-ডিসেম্বর) এর ইপিএস দাঁড়িয়েছে ৫ টাকা ৫৬ পয়সা, যা আগের বছরের একই সময়ে ছিল ১ টাকা ৩১ পয়সা।

    Facebook Comments Box

    বাংলাদেশ সময়: ৬:১৪ অপরাহ্ণ | রবিবার, ০৩ মার্চ ২০১৯

    bankbimaarthonity.com |

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    রডের দাম বাড়ছে

    ১৩ জানুয়ারি ২০১৯

    Archive Calendar

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০
    ১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
    ১৮১৯২০২১২২২৩২৪
    ২৫২৬২৭২৮২৯৩০  
  • ফেসবুকে ব্যাংক বীমা অর্থনীতি