রবিবার ১৯ মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৫ জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ডিএসইর ফিক্স সার্টিফিকেশন পেল তিন ব্রোকারেজ হাউজ

নিজস্ব প্রতিবেদক   |   মঙ্গলবার, ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৩   |   প্রিন্ট   |   60 বার পঠিত

ডিএসইর ফিক্স সার্টিফিকেশন পেল তিন ব্রোকারেজ হাউজ

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসইর) ফিক্স সার্টিফিকেশন পেয়েছে তিন ব্রোকারেজ হাউজ। হাউজগুলো হলো: সিটি ব্রোকারেজ, ফার্স্ট ক্যাপিটাল সিকিউরিটিজ এবং শান্তা সিকিউরিটিজ।

সোমবার ডিএসইর ট্রেনিং একাডেমি নিকুঞ্জে তিন প্রতিষ্ঠানকে এই সার্টিফিকেশন প্রদান করেন ডিএসইর ব্যবস্থাপনা পরিচালক (ভারপ্রাপ্ত) এম সাইফুর রহমান মজুমদার । অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন প্রোডাক্ট এন্ড মার্কেট ডেভেলপমেন্ট ডিপার্টমেন্টের উপ-মহাব্যবস্থাপক সাইয়্যিদ সাইয়িদ মাহমুদ জুবায়ের।

অনুষ্ঠানে এম সাইফুর রহমান বলেন, আজ ডিএসইর জন্য স্মরণীয় একটি দিন। প্রযুক্তিগত উন্নয়নের সাথে সাথে পুঁজিবাজারেরও উন্নয়ন সাধিত হচ্ছে। আট-দশ বছর আগে ডিএসই শুধুমাত্র একটি সেন্ট্রাল অর্ডার ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম সম্বলিত ম্যাচিং ইঞ্জিন কিনেছিল। কার্যত তখন একইসময় অনেক ওএমএস সংযোগ দেওয়া যেতে পারে তা বিবেচনা বা চিন্তা করা হয়নি। এখন ডিএসইর ট্রেকহোল্ডারদের ভিন্ন ভিন্ন ওএমএস সিস্টেম ব্যবহারের সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে। এই ওএমএস এর অন্তর্ভূক্তির নতুন প্রক্রিয়া পরিচালনার ক্ষেত্রে আমি সকলকে সতর্কতা অবলম্বন করার জন্য আহবান জানাচ্ছি।

আরও বলেন, ডিএসই ইতোমধ্যে ফিক্স সার্টিফিকেশন দেওয়ার সক্ষমতা অর্জন করেছে। এখন ডিএসই, প্রযুক্তি প্রদানকারী ও ব্রোকারেজ হাউজগুলো একসাথে সম্মিলিতভাবে কাজ করতে হবে। ডিএসই প্রতিনিয়ত নতুন নতুন প্রযুক্তির অন্তর্ভূক্তির মাধ্যমে পুঁজিবাজার উন্নয়নের জন্য কাজ করছে। আমি আশা করি, ডিএসই অচিরেই আধুনিক প্রযুক্তি সম্বলিত আন্তর্জাতিকমানের এক্সচেঞ্জে পরিণত হবে।

সিটি ব্রোকারেজের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও মিসবাহ উদ্দিন আফফান ইউসুফ বলেন, ফিক্সড সার্টিফিকেট গ্রহন আমাদের জন্য অত্যন্ত গর্বের বিষয়। আমরা ২০২১ সালে সার্টিফিকেট গ্রহন করি। আমরা সে সময় সার্টিফিকেটটি ফিক্সনক্স এর কাছ থেকে নিয়েছিলাম। এর কিছুদিনের মধ্যে ডিএসই এই সার্টিফিকেট প্রদানের সক্ষমতা অর্জন করে। যা ডিএসইর জন্য একটি বড় অর্জন। এর মাধ্যমে আমরা আমাদের বিনিয়োগকারীদের আরও উন্নত সেবা প্রদান করতে পারবো।

ফার্স্ট ক্যাপিটাল সিকিউরিটিজের সিইও কাওসার মুহাম্মদ কাউসার আল মামুন বলেন, বাংলাদেশের পুঁজিবাজারকে বিশ্বের সাথে তাল মিলানোর জন্য যে প্রক্রিয়া সেটি আজকে আমরা সম্পন্ন করতে পেরেছি। সারা বিশ্বে আজ আধুনিক পদ্ধতিতে লেনদেন করা হচ্ছে। সেক্ষেত্রে আমরা অনেক পিছিয়ে ছিলাম। কিন্তু বর্তমানে আমরা আমাদের লেনদেন প্রক্রিয়াকে আর্ন্তজাতিকমানে উন্নিত করতে পেরেছি। এখন শুধু বাকী রয়েছে রোবটিক ট্রেডিং। আশা করি এটি আমরা অল্প সময়ে মধ্যে করতে পারবো। আর পুঁজিবাজারে বিভিন্ন সেবা চালুর মাধ্যমে আমাদের পুঁজিবাজার বিশ্বমানের পুঁজিবাজারে পরিণত হবে।

শান্তা সিকিউরিটিজের সিইও কাজী আসাদুজ্জামান বলেন, শান্তা সিকিউরিটিজ তার সূচনালগ্ন থেকেই বিনিয়োগকারীদের উন্নত সেবা প্রদানের জন্য সচেষ্ট। ডিএসই যখন নিজস্ব অর্ডার ম্যানেজমেন্ট সিস্টেমের মাধ্যমে লেনদেন সুবিধা চালু করে শান্তা সিকিউরিটিস দ্রুত এ সুবিধা গ্রহণের জন্য উদ্যোগ গ্রহণ করে। এটি অত্যন্ত দীর্ঘ প্রক্রিয়া হবার কারনে এর সাথে যারা জড়িত ছিলেন আমি সকলকে ধন্যবাদ জানাই। আমরা সব সময় বিনিয়োগকারীদের সুবিধা দেয়ার জন্য উন্নত প্রযুক্তি গ্রহণে প্রস্তুত রয়েছি। এক্ষেত্রে আমরা ডিএসইর সহযোগিতা চাই।

এর আগে ডিএসইর প্রধান প্রযুক্তি কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) ও মহাব্যবস্থাপক মো. তারিকুল ইসলাম স্বাগত বক্তব্যে বলেন, এপিআই ইউএটির অনেক সুবিধা রয়েছে। এখানে বিভিন্ন সুযোগ সুবিধা ফিক্স করে দেয়া হয়েছে। নিজস্ব ওএমএস চালু করার জন্য একটি দীর্ঘ প্রক্রিয়া পাড়ি দিতে হয়। এক্ষেত্রে ডিএসই সীমিত লোকবল নিয়ে আপনাদের সব্বোর্চ সেবা দেয়ার চেষ্টা করেছে। ট্রেকহোল্ডারদের নিজস্ব ওএমএস চালু ও ব্যবহারের ক্ষেত্রে ডিএসইর আইটি বিভাগ সব সময় আপনাদের সমর্থন করবে।

জানা যায়, বিশ্বের অন্যান্য স্টক এক্সচেঞ্জের সাথে সঙ্গতি রেখে ডিএসই এপিআই (অ্যাপ্লিকেশন প্রোগ্রাম ইন্টারফেস) ভিত্তিক বিএইচওএমএস চালুর উদ্যোগ গ্রহণ করে। এরই প্রেক্ষিতে ৪৬টি ব্রোকারেজ হাউজ নাসডাক ম্যাচিং ইঞ্জিনে এপিআই সংযোগ নিয়ে নিজস্ব অর্ডার ম্যানেজমেন্ট সিস্টেমের মাধ্যমে লেনদেন করার জন্য ডিএসইতে আবেদন করে। এরই প্রেক্ষিতে সিটি ব্রোকারেজ, ফাস্ট ক্যাপিটাল সিকিউরিটিজ এবং শান্তা সিকিউরিটিজকে ডিএসইর ফিক্স সার্টিফিকেশন প্রদান করে।

এই প্রক্রিয়ায় সিটি ব্রোকারেজ এবং শান্তা সিকিউরিটিজের ওএমএস ভেন্ডর ছিল ডিরেক্টএফএন এবং ফার্স্ট ক্যাপিটাল সিকিউরিটিজের ছিল ইকোসফট বিডি। ভেন্ডর প্রতিনিধি ডিরেক্টএফএন এশিয়া জোনের হেড অব বিজনেস এন্ড স্ট্রাটেজি আমির শামস, ইকোসফটবিডি আইটির চীফ পরিচালন কর্মকর্তা সোহেল রানা এবং সিটি ব্রোকারেজ এবং শান্তা সিকিউরিটিজের পরামর্শক হাইমদলার এন্ড কোং এর কনসালটেন্ট নিজাম উদ্দিন আহমেদ।

নিজস্ব অর্ডার ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম গ্রহণের ধারাবাহিক কার্যক্রমের অংশ হিসেবে তিনটি প্রতিষ্ঠান ইউজার এক্সেস্টটেন্স টেস্টিং কার্যক্রম সফলতার সাথে সম্পন্ন করে। প্রতিষ্ঠানগুলোর নিজস্ব অর্ডার ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম (ওএমএস) চালুর পূর্ববর্তী ধাপ হলো- ফিক্স সার্টিফিকেশনের। ওএমএস গো লাইভে যাওয়ার জন্য ডিএসইর ম্যাচিং ইঞ্জিন ও ব্রোকার হোস্টেড অর্ডার ম্যানেজমেন্ট সিস্টেমের (ওএমএস) এর সিস্টেমে সামঞ্জস্য যাচাইয়ের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ধাপ হলো ফিক্স সার্টিফিকেশন। সিটি ব্রোকারেজ, ফাস্ট ক্যাপিটাল সিকিউরিটিজ এবং শান্তা সিকিউরিটিজ ফিক্স সার্টিফিকেশনের জন্য টেস্ট কেসের কার্যক্রম ২০২৩ সালের জানুয়ারি মাসে সফলতার সাথে সম্পন্ন করে।

 

 

Facebook Comments Box
(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});

Posted ১:০৯ অপরাহ্ণ | মঙ্গলবার, ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৩

bankbimaarthonity.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আর্কাইভ ক্যালেন্ডার

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০৩১
প্রধান সম্পাদক: মোহাম্মাদ মুনীরুজ্জামান
নিউজরুম:

মোবাইল: ০১৭১৫-০৭৬৫৯০, ০১৮৪২-০১২১৫১

ফোন: ০২-৮৩০০৭৭৩-৫, ই-মেইল: bankbima1@gmail.com

সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক কার্যালয়: পিএইচপি টাওয়ার, ১০৭/২, কাকরাইল, ঢাকা-১০০০।