• ডিএসই এমডি নিয়োগে ডাক পেলেন কাজী সানাউল

    বিবিএনিউজ.নেট | ১২ জানুয়ারি ২০২০ | ১২:৩৫ অপরাহ্ণ

    ডিএসই এমডি নিয়োগে ডাক পেলেন কাজী সানাউল
    apps

    ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) নিয়োগ প্রক্রিয়ায় সাক্ষাতকার শেষে পর্ষদ সভায় ডাক পেয়েছেন কাজী সানাউল হক। ডিএসই’র এক শেয়ারহোল্ডার পরিচালকের পছন্দের প্রার্থী ইনভেস্টমেন্ট কর্পোরেশন অব বাংলাদেশের (আইসিবি) বিতর্কিত সাবেক এমডি কাজী সানাউল হক। তবে নিয়োগ প্রক্রিয়ায় সাক্ষাতকার শেষে ২ জনের শর্ট লিস্ট করা হয়েছিল। এ নিয়ে ডিএসই’র পরিচালক ও সদস্যদের মধ্যে তীব্র ক্ষোভ সৃষ্টি হয়েছে।

    আইসিবি’র সাবেক এমডি কাজী সানাউল হক বাংলাদেশ ডেভলপমেন্ট ব্যাংকের (বিডিবিএল) বিনিয়োগ বিভাগের জিএম পদে থাকাকালীন দুর্বল সিভিও পেট্রোকেমিক্যাল রিফাইনারীর শেয়ার কেলেঙ্কারির ঘটনায় জড়িয়ে পড়েন। এর ফলে ২০১৪ সালের জানুয়ারিতে বিডিবিএল’কে শাস্তি দিয়ে চিঠি দেয় বিএসইসি। তার সময়ে আইসিবি’র মুনাফায়ও বড় ধস নামে।

    Progoti-Insurance-AAA.jpg

    কাজী সানাউল হক আইসিবি’র এমডি হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন ২০১৭ সালের ১০ আগস্ট থেকে ২০১৯ সালের ২১ আগস্ট পর্যন্ত। তার দায়িত্ব গ্রহণের আগের অর্থবছরে (২০১৬-১৭) আইসিবি’র মুনাফা হয়েছিল ৪৬১ কোটি ৫৭ লাখ টাকা বা শেয়ারপ্রতি ৭.২৯ টাকা। যা তার আমলে প্রথম অর্থবছরে (২০১৭-১৮) কমে দাঁড়ায় ৪১৬ কোটি ৩৩ লাখ টাকা বা শেয়ারপ্রতি ৬.২৭ টাকায়। আর ২য় অর্থবছরে (২০১৮-১৯) রীতিমতো ধস নামে। ওই অর্থবছরে আইসিবি’র মুনাফা হয় মাত্র ৬০ কোটি ১৩ লাখ টাকা বা শেয়ারপ্রতি ০.৮৬ টাকা।

    গত মঙ্গলবার আগ্রহী প্রার্থীদের মধ্যে ৪ জনের সাক্ষাতকার নেয় ডিএসই’র নমিনেশন অ্যান্ড রেম্যুনারেশন কমিটি (এনআরসি)। এদের মধ্য থেকে ২ জনের নাম সুপারিশ করে পর্ষদে পাঠানোর সিদ্ধান্ত নেয় এনআরসি। দু’জনের মধ্যে ছিলেন যমুনা ব্যাংকের সাবেক এমডি শফিকুল আলম ও আইসিবি’র সাবেক এমডি কাজী সানাউল হক।


    আগের দিন দু’জনের নাম পর্ষদে সুপারিশ করার সিদ্ধান্ত নেয়া হলেও গতকাল বুধবার তা বিশেষ কারণে পরিবর্তন করা হয়েছে। ডিএসই’র এক পরিচালকের চেষ্টায় এখন পর্যন্ত শুধু কাজী সানাউল হককে আজকের পর্ষদ সভায় ডাকা হয়েছে বলে ডিএসই’র একটি সূত্র নিশ্চিত করেছে। যা কোনভাবেই মেনে নিতে পারছে না অন্যেরা। এক্ষেত্রে নষ্ট রাজনীতি করা হচ্ছে বলে অভিযোগ তাদের।

    এছাড়াও আইসিবি’র সাবেক এমডি কাজী সানাউল হককে আইসিবি’র অঙ্গ প্রতিষ্ঠানে ঋণ জালিয়াতির ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) তলব করার ঘটনাও আছে। তার দায়িত্বরত অবস্থায় ঋণ জালিয়াতির ঘটনা ঘটে। শেয়ার ব্যবসায় জড়িত যেসব লোক ঋণ পাওয়ার যোগ্য নন- তাদের ঋণ দেয়া, যাকে ২৫ লাখ টাকা ঋণ দেয়ার কথা তাকে কয়েক কোটি টাকা করে ঋণ দেয়ার ঘটনাও ঘটে। এসবের মাধ্যমে সরকারের ১৩৭ কোটি টাকা ক্ষতি হয় বলে অনুসন্ধানে বেরিয়ে আসে।

    অন্যদিকে প্রায় ৬ মাস ধরে এমডি ছাড়া চলছে ডিএসই। এর আগে দু’ দফা বিজ্ঞপ্তি দিয়েও যোগ্য কাউকে পাওয়া যায়নি। এবার তৃতীয় দফা বিজ্ঞপ্তিতে আবেদনকারীদের মধ্য থেকে যোগ্য ব্যক্তি খোজাঁর জন্য গত মঙ্গলবার সাক্ষাতকার অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে ৬ জন প্রার্থীকে ডাকা হয়েছিল। তবে ৪ জন সাক্ষাতকারে অংশ নেন।

    দু’ দফা বিজ্ঞপ্তি দিয়েও যোগ্য এমডি না পাওয়ায় ডিএসই সময় নিয়ে গত ১০ ডিসেম্বর তৃতীয় দফায় এমডি’র খোঁজে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে। আগ্রহী প্রার্থীদেরকে গতবছরের ২৪ ডিসেম্বরের মধ্যে জীবনবৃত্তান্তসহ আবেদন পাঠাতে বলা হয়েছিল। এতে ২৪ জন আবেদন করেন। এরমধ্য থেকে ৬ জনকে সাক্ষাতকারের জন্য ডাকা হয়।

    জানা গেছে, চলতি বছরের ১১ জুলাই ডিএসই’র এমডি পদ শূন্য হয়। ওই পদ পূরণে নতুন এমডি’র খোঁজে গত ৭ আগস্ট বিজ্ঞপ্তি দেয় ডিএসই কর্তৃপক্ষ। এতে আগ্রহী প্রার্থীদেরকে ১ সেপ্টেম্বরের মধ্যে আবেদন করতে বলা হয়েছিল। যেখানে ১৬ জন আবেদন করেছিলেন। তবে ওই ১৬ জনের মধ্যে কাউকেই যোগ্য মনে করেনি ডিএসই’র পর্ষদ এবং নমিনেশন অ্যান্ড রেম্যুনারেশন কমিটি (এনআরসি)। এরপরে গত ৫ সেপ্টেম্বর দ্বিতীয় দফায় এমডি’র খোঁজে বিজ্ঞপ্তি দেয় ডিএসই। এক্ষেত্রে আবেদন করেছিল ৩ জন। অর্থাৎ দু’ দফায় ১৯ জন ডিএসই’র এমডি পদে নিয়োগের জন্য আবেদন করেছিলেন।

    দুই দফায় আবেদনকারীদের মধ্য থেকে গত ২ অক্টোবর ৭ জন প্রার্থীকে সাক্ষাতকারের জন্য ডাকা হয়। পরবর্তীতে ৭ জনের মধ্যে ৩ জনকে নিয়ে শর্ট লিস্ট করা হয়। যাদেরকে গত ৬ অক্টোবর ডিএসই’র পর্ষদ ডাকে। তবে ওই ৩ জনের মধ্যেও কাউকেই চূড়ান্ত নিয়োগের জন্য যোগ্য মনে করেনি পর্ষদ। ফলে যোগ্য এমডি’র খোঁজে আবারও বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের সিদ্ধান্ত নেয়া হয় ৬ অক্টোবরের পর্ষদ সভায়, যা গত ১০ ডিসেম্বর প্রকাশ করা হয়।

    ব্যবস্থাপনা থেকে মালিকানা পৃথকীকরণে ডি-মিউচ্যুয়ালাইজেশন স্কিমের পর দ্বিতীয় ব্যবস্থাপনা পরিচালক হিসেবে ২০১৬ সালের ২৯ জুন নিয়োগ পান কে এ এম মাজেদুর রহমান। যার মেয়াদ শেষ হয়েছে গত ১১ জুলাই। এরপর থেকেই পদটি খালি রয়েছে। ডিএসই’র প্রধান অর্থ কর্মকর্তা (সিএফও) আবদুল মতিন পাটোয়ারী বর্তমানে স্টক এক্সচেঞ্জটির ভারপ্রাপ্ত এমডি হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

    Facebook Comments Box

    বাংলাদেশ সময়: ১২:৩৫ অপরাহ্ণ | রবিবার, ১২ জানুয়ারি ২০২০

    bankbimaarthonity.com |

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    Archive Calendar

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩১৪১৫
    ১৬১৭১৮১৯২০২১২২
    ২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
    ৩০৩১  
  • ফেসবুকে ব্যাংক বীমা অর্থনীতি