শুক্রবার ২১ জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৭ আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ডেল্টা হসপিটালের কাট-অফ প্রাইস নির্ধারণ

নিজস্ব প্রতিবেদক   |   রবিবার, ৩১ মে ২০২০   |   প্রিন্ট   |   437 বার পঠিত

ডেল্টা হসপিটালের কাট-অফ প্রাইস নির্ধারণ

বুক বিল্ডিং পদ্ধতিতে তালিকাভুক্তির প্রক্রিয়াধীন ডেল্টা হসপিটালের কাট-অফ প্রাইস মাত্র ১১ টাকা নির্ধারণ করেছেন। ফলে সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছে ১০ টাকা বা অভিহিত মূল্যে শেয়ার বিক্রি করতে হবে কোম্পানিটিকে। বুক বিল্ডিং পদ্ধতিতে শেয়ারবাজারে আসা এর আগে কোনো কোম্পানির কাট-অফ প্রাইস এত কম নির্ধারিত হয়নি।

নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) অনুমোদন নিয়ে গত ২২ মার্চ বিকেল ৫টা থেকে ২৫ মার্চ বিকেল ৫টা পর্যন্ত টানা ৭২ ঘণ্টার বিডিংয়ে অংশগ্রহণ করেন যোগ্য বিনিয়োগকারীরা। ২৬ মার্চ থেকে শেয়ারবাজার বন্ধ থাকায় আজ রোববার (৩১) কোম্পানিটির কাট-অফ প্রাইস প্রকাশ করা হয়েছে।

বিডিংয়ে ৮৮ জন বিডার দর প্রস্তাব করেন। এরমধ্যে ১৫ টাকা দরে সবচেয়ে বেশি ১৪ জন বিডার দর প্রস্তাব করেছেন। এরপরে ১৪ টাকায় দ্বিতীয় সর্বোচ্চ দর প্রস্তাব করেছেন ১১ জন বিডার।

বিডিংয়ে ৮৮ জন বিডার সর্বোচ্চ ৪৬ টাকা থেকে সর্বনিম্ন ১১ টাকার মধ্যে দর প্রস্তাব করেছেন। তারা মোট ৩২ কোটি ৩৯ লাখ ৮৭ হাজার ৯০০ টাকার দর প্রস্তাব করেছেন।

বিডিংয়ে অংশগ্রহণ করা বিনিয়োগকারীরা, তাদের প্রস্তাবিত দরে ৩১ কোটি ৫৪ লাখ ২৯ হাজার টাকার শেয়ার কিনবেন। আর কাট-অফ প্রাইস থেকে ১০ শতাংশ কম দরে বা প্রতিটি ১০ টাকা করে ১৮ কোটি ৪৫ লাখ ৭১ হাজার টাকার শেয়ার প্রাথমিক গণপ্রস্তাবে (আইপিও) ইস্যু করা হবে।

এর ফলে আইপিওতে সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছ থেকে কোনো ধরনের প্রিমিয়াম নেয়ার সুযোগ পাবে না কোম্পানিটি। অর্থাৎ বুক বিল্ডিং পদ্ধতিতে আইপিওতে আসলেও অভিহিত মূল্য কোম্পানিটিকে সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছে শেয়ার ইস্যু করতে হবে। দেশের শেয়ারবাজারের ইতিহাসে বুক বিল্ডিং পদ্ধতিতে আইপিওতে আসা কোনো কোম্পানির ক্ষেত্রে এর আগে এমন ঘটনা ঘটেনি।

যন্ত্রপাতি ক্রয়, ব্যাংক ঋণ পরিশোধ এবং আইপিও খরচ খাতে ব্যয় মেটানোর জন্য গত ১১ ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন কোম্পানিটি বুক বিল্ডিং পদ্ধতিতে আইপিও মাধ্যমে শেয়ারবাজার থেকে ৫০ কোটি টাকা উত্তোলন করার অনুমোদন দেয়।

সে সময় বিএসইসি থেকে জানানো হয়, ২০১৯ সালের ৩০ জুন সমাপ্ত আর্থিক বিবরণী অনুযায়ী কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি নিট সম্পদ মূল্য (পুনর্মূল্যায়ন সঞ্চিতিসহ) দাঁড়িয়েছে ৪৫ টাকা ৮৪ পয়সা এবং শেয়ারপ্রতি নিট সম্পত্তি মূল্য (পুনর্মূল্যায়ন সঞ্চিতি ব্যতীত) দাঁড়িয়েছে ১৬ টাকা ৬২ পয়সা। আর ২০১৮-১৯ অর্থবছরে শেয়ারপ্রতি মুনাফা (ইপিএস) হয়েছে ২ টাকা ১০ পয়সা।

কোম্পানির ইস্যু ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে রয়েছে প্রাইম ফাইন্যান্স ক্যাপিটাল ম্যানেজমেন্ট লিমিটেড এবং রেজিস্টার টু দ্য ইস্যুর দায়িত্বে রয়েছে আইসিবি ক্যাপিটাল ম্যানেজমেন্ট।

Facebook Comments Box
(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});

Posted ৫:০২ অপরাহ্ণ | রবিবার, ৩১ মে ২০২০

bankbimaarthonity.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

রডের দাম বাড়ছে
(11253 বার পঠিত)

আর্কাইভ ক্যালেন্ডার

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০  
প্রধান সম্পাদক: মোহাম্মাদ মুনীরুজ্জামান
নিউজরুম:

মোবাইল: ০১৭১৫-০৭৬৫৯০, ০১৮৪২-০১২১৫১

ফোন: ০২-৮৩০০৭৭৩-৫, ই-মেইল: bankbima1@gmail.com

সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক কার্যালয়: পিএইচপি টাওয়ার, ১০৭/২, কাকরাইল, ঢাকা-১০০০।