বুধবার ২৯ মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ১৫ জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

তৃতীয় প্রান্তিকে মুনাফা কমেছে ৯ প্রতিষ্ঠানের

নিজস্ব প্রতিবেদক   |   রবিবার, ২৮ জুন ২০২০   |   প্রিন্ট   |   339 বার পঠিত

তৃতীয় প্রান্তিকে মুনাফা কমেছে ৯ প্রতিষ্ঠানের

চলতি বছরের জানুয়ারি-মার্চের ব্যবসায় শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত ৯ কোম্পানির আগের বছরের তুলনায় মুনাফা কমেছে। কোম্পানিগুলো হলো-শেফার্ড ইন্ডাস্ট্রিজ, জিপিএইচ ইস্পাত, ডেল্টা স্পিনিং, বিএসআরএম, হা-ওয়েল টেক্সটাইলস, ইন্ট্রাকো, ইফাদ অটোস, পেনিনসুলা এবং মেঘনা সিমেন্ট। কোম্পানিগুলোর পরিচালনা পর্ষদ সভা শেষে প্রকাশিত আর্থিক প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানা গেছে। রোববার (২৮ জুন) ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) মাধ্যমে এ প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়।

শেফার্ড ইন্ডাস্ট্রিজ : চলতি বছরের জানুয়ারি-মার্চ প্রান্তিকে কোম্পানিটি শেয়ারপ্রতি মুনাফা করেছে ৮ পয়সা, যা আগের বছরের একই সময়ে ছিল ২১ পয়সা। সে হিসেবে আগের বছরের তুলনায় শেয়ারপ্রতি মুনাফা কমেছে ১৩ পয়সা।

তৃতীয় প্রান্তিকে মুনাফা কমায় নয় মাসের হিসাবেও কোম্পানিটির মুনাফা আগের বছরের তুলনায় কমেছে। ২০১৯ সালের জুলাই থেকে চলতি বছরের মার্চ পর্যন্ত সময়ে কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি মুনাফা হয়েছে ৪১ পয়সা। যা আগের বছরের একই সময়ে ছিল ৭৬ পয়সা।

জিপিএইচ ইস্পাত : চলতি বছরের জানুয়ারি-মার্চ প্রান্তিকে কোম্পানিটি শেয়ারপ্রতি মুনাফা করেছে ১২ পয়সা, যা আগের বছরের একই সময়ে ছিল ৬১ পয়সা। সে হিসেবে আগের বছরের তুলনায় শেয়ারপ্রতি মুনাফা কমেছে ৪৯ পয়সা।

তৃতীয় প্রান্তিকে মুনাফা কমায় নয় মাসের হিসাবেও কোম্পানিটির মুনাফা আগের বছরের তুলনায় কমেছে। ২০১৯ সালের জুলাই থেকে চলতি বছরের মার্চ পর্যন্ত সময়ে কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি মুনাফা হয়েছে ৯৮ পয়সা। যা আগের বছরের একই সময়ে ছিল ১ টাকা ৪৯ পয়সা।

ডেল্টা স্পিনিং : চলতি বছরের জানুয়ারি-মার্চ প্রান্তিকে কোম্পানিটি শেয়ারপ্রতি মুনাফা করেছে ৪ পয়সা, যা আগের বছরের একই সময়ে ছিল ৭ পয়সা। সে হিসেবে আগের বছরের তুলনায় শেয়ারপ্রতি মুনাফা বেড়েছে ৩ পয়সা।

তৃতীয় প্রান্তিকে মুনাফা কমায় নয় মাসের হিসাবে কোম্পানিটির মুনাফা আগের বছরের তুলনায় কমেছে। ২০১৯ সালের জুলাই থেকে চলতি বছরের মার্চ পর্যন্ত সময়ে কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি মুনাফা হয়েছে ১৬ পয়সা। যা আগের বছরের একই সময়ে ছিল ২০ পয়সা।

বিএসআরএম : চলতি বছরের জানুয়ারি-মার্চ প্রান্তিকে কোম্পানিটি শেয়ারপ্রতি মুনাফা করেছে ১ টাকা ৬১ পয়সা, যা আগের বছরের একই সময়ে ছিল ২ টাকা ৮৫ পয়সা। সে হিসেবে আগের বছরের তুলনায় শেয়ারপ্রতি মুনাফা কমেছে ১ টাকা ২৪ পয়সা।

তৃতীয় প্রান্তিকে মুনাফা কমায় নয় মাসের হিসাবে কোম্পানিটির মুনাফা আগের বছরের তুলনায় কমেছে। ২০১৯ সালের জুলাই থেকে চলতি বছরের মার্চ পর্যন্ত সময়ে কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি মুনাফা হয়েছে ৩ টাকা ১৪ পয়সা। যা আগের বছরের একই সময়ে ছিল ৫ টাকা ৪৬ পয়সা।

হা-ওয়েল টেক্সটাইলস : চলতি বছরের জানুয়ারি-মার্চ প্রান্তিকে কোম্পানিটি শেয়ারপ্রতি মুনাফা করেছে ৪৮ পয়সা, যা আগের বছরের একই সময়ে ছিল ৬২ পয়সা। সে হিসেবে আগের বছরের তুলনায় শেয়ারপ্রতি মুনাফা কমেছে ১৪ পয়সা।

তৃতীয় প্রান্তিকে মুনাফা কমায় নয় মাসের হিসাবেও কোম্পানিটির মুনাফা আগের বছরের তুলনায় কমেছে। ২০১৯ সালের জুলাই থেকে চলতি বছরের মার্চ পর্যন্ত সময়ে কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি মুনাফা হয়েছে ১ টাকা ৯০ পয়সা। যা আগের বছরের একই সময়ে ছিল ২ টাকা ১ পয়সা।

ইন্ট্রাকো : চলতি বছরের জানুয়ারি-মার্চ প্রান্তিকে কোম্পানিটি শেয়ারপ্রতি মুনাফা করেছে ১৩ পয়সা, যা আগের বছরের একই সময়ে ছিল ২২ পয়সা। সে হিসেবে আগের বছরের তুলনায় শেয়ারপ্রতি মুনাফা কমেছে ৯ পয়সা।

তৃতীয় প্রান্তিকে মুনাফা কমায় নয় মাসের হিসাবেও কোম্পানিটির মুনাফা আগের বছরের তুলনায় কমেছে। ২০১৯ সালের জুলাই থেকে চলতি বছরের মার্চ পর্যন্ত সময়ে কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি মুনাফা হয়েছে ৫৩ পয়সা। যা আগের বছরের একই সময়ে ছিল ৬৮ পয়সা।

ইফাদ অটোস : চলতি বছরের জানুয়ারি-মার্চ প্রান্তিকে কোম্পানিটি শেয়ারপ্রতি মুনাফা করেছে ৪৯ পয়সা, যা আগের বছরের একই সময়ে ছিল ১ টাকা ৩ পয়সা। সে হিসেবে আগের বছরের তুলনায় শেয়ারপ্রতি মুনাফা কমেছে ৫৪ পয়সা।

তৃতীয় প্রান্তিকে মুনাফা কমায় নয় মাসের হিসাবেও কোম্পানিটির মুনাফা আগের বছরের তুলনায় কমেছে। ২০১৯ সালের জুলাই থেকে চলতি বছরের মার্চ পর্যন্ত সময়ে কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি মুনাফা হয়েছে ১ টাকা ৯৬ পয়সা। যা আগের বছরের একই সময়ে ছিল ৪ টাকা ২১ পয়সা।

পেনিনসুলা চিটাগাং : চলতি বছরের জানুয়ারি-মার্চ প্রান্তিকে কোম্পানিটি শেয়ারপ্রতি মুনাফা করেছে ১১ পয়সা, যা আগের বছরের একই সময়ে ছিল ২০ পয়সা। সে হিসেবে আগের বছরের তুলনায় শেয়ার প্রতি মুনাফা কমেছে ৯ পয়সা।

তৃতীয় প্রান্তিকে মুনাফা কমায় নয় মাসের হিসাবেও কোম্পানিটির মুনাফা আগের বছরের তুলনায় কমেছে। ২০১৯ সালের জুলাই থেকে চলতি বছরের মার্চ পর্যন্ত সময়ে কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি মুনাফা হয়েছে ৪১ পয়সা। যা আগের বছরের একই সময়ে ছিল ৮৪ পয়সা।

মেঘনা সিমেন্ট : চলতি বছরের জানুয়ারি-মার্চ প্রান্তিকে কোম্পানিটি শেয়ারপ্রতি মুনাফা করেছে ৩১ পয়সা, যা আগের বছরের একই সময়ে ছিল ৮৪ পয়সা। সে হিসেবে আগের বছরের তুলনায় শেয়ারপ্রতি মুনাফা কমেছে ৫৩ পয়সা।

তৃতীয় প্রান্তিকে মুনাফা কমায় নয় মাসের হিসাবেও কোম্পানিটির মুনাফা আগের বছরের তুলনায় কমেছে। ২০১৯ সালের জুলাই থেকে চলতি বছরের মার্চ পর্যন্ত সময়ে কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি মুনাফা হয়েছে ৯৭ পয়সা। যা আগের বছরের একই সময়ে ছিল ১ টাকা ৩ পয়সা।

Facebook Comments Box
(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});

Posted ৪:৩৪ অপরাহ্ণ | রবিবার, ২৮ জুন ২০২০

bankbimaarthonity.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আর্কাইভ ক্যালেন্ডার

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০৩১
প্রধান সম্পাদক: মোহাম্মাদ মুনীরুজ্জামান
নিউজরুম:

মোবাইল: ০১৭১৫-০৭৬৫৯০, ০১৮৪২-০১২১৫১

ফোন: ০২-৮৩০০৭৭৩-৫, ই-মেইল: bankbima1@gmail.com

সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক কার্যালয়: পিএইচপি টাওয়ার, ১০৭/২, কাকরাইল, ঢাকা-১০০০।