সোমবার ২০ মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৬ জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

২৬ ব্যাংকের ডিভিডেন্ড ঘোষণা

নগদ ২ হাজার কোটি টাকা পাচ্ছে বিনিয়োগকারীরা

নিজস্ব প্রতিবেদক   |   বুধবার, ২৬ মে ২০২১   |   প্রিন্ট   |   1395 বার পঠিত

নগদ ২ হাজার কোটি টাকা পাচ্ছে বিনিয়োগকারীরা

ব্যাংক খাতের কোম্পানিগুলোর মধ্যে ২৬টি ব্যাংক ৩১ ডিসেম্বর ২০২০ পর্যন্ত সমাপ্ত অর্থবছরে সংশ্লিষ্ট বিনিয়োগকারীদের জন্য ডিভিডেন্ড ঘোষণা করেছে।

ব্যাংকগুলো হলো- এবি ব্যাংক, আল-আরাফাহ্ ইসলামী ব্যাংক, ব্যাংক এশিয়া লিমিটেড, ব্র্যাক ব্যাংক, সিটি ব্যাংক লিমিটেড, ঢাকা ব্যাংক, ডাচ-বাংলা ব্যাংক লিমিটেড, ইস্টার্ন ব্যাংক, এক্সিম ব্যাংক, ফার্স্ট সিকিউরিটিজ ইসলামী ব্যাংক, আইএফআইসি ব্যাংক, ইসলামী ব্যাংক, যমুনা ব্যাংক লিমিটেড, মার্কেন্টাইল ব্যাংক লিমিটেড, মিউচু্যুয়াল ট্রাস্ট ব্র্যাংক, এনসিসি ব্যাংক, এনআরবিসি ব্যাংক, ওয়ান ব্যাংক, প্রিমিয়ার ব্যাংক লিমিটেড, প্রাইম ব্যাংক, পূবালী ব্যাংক, শাহজালাল ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড, সোস্যাল ইসলামী ব্যাংক, সাউথইস্ট ব্যাংক, স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংক এবং উত্তরা ব্যাংক। এর মধ্যে ১৯টি ব্যাংক স্টক ডিভিডেন্ড দিয়েছে এবং ২৩টি ব্যাংক ক্যাশ ডিভিডেন্ড দিয়েছে। এছাড়া ১৭টি ব্যাক স্টক ও ক্যাশ ডিভিডেন্ড ঘোষণা করেছে। ২৩ ব্যাংক থেকে ক্যাশ ডিভিডেন্ড হিসেবে ২ হাজার ৩০৭ কোটি ১৯ লাখ ৫১ হাজার ৬৮২ টাকা পাবে বিনিয়োগকারীরা। এছাড়া স্টক ডিভিডেন্ডের মাধ্যমে ব্যাংক খাতে মূলধন বাড়ছে এক হাজার ১৩৫ কোটি ৮২ লাখ ৮৬ হাজার ৮৪ টাকা।আইসিবি ইসলামী ব্যাংক ডিভিডেন্ড সংক্রান্ত বোর্ড সভা অনুষ্ঠিত হলেও ডিভিডেন্ড ঘোষণা করেনি। এছাড়া, টাস্ট ব্যাংক, ন্যাশনাল ব্যাংক এবং ইউসিবি এখনো বোর্ড সভার তারিখ ঘোষণা করেনি। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

এবি ব্যাংক : ২০২০ অর্থবছরে ব্যাংকটি সংশ্লিষ্ট বিনিয়োগকারীদের জন্য ৫ শতাংশ স্টক ডিভিডেন্ড ঘোষণা করেছে। অর্থাৎ এর মাধ্যমে কোম্পানিটির মূলধন বাড়বে ৩৯ কোটি ৮০ লাখ ১৮ হাজার ৪১৫ টাকা।

আল-আরাফাহ্ ইসলামী ব্যাংক : ২০২০ অর্থবছরে ব্যাংকটি সংশ্লিষ্ট বিনিয়োগকারীদের জন্য ১৫ শতাংশ ক্যাশ ডিভিডেন্ড ঘোষণা করেছে। অর্থাৎ এর মাধ্যমে কোম্পানিটির কাছে থেকে বিনিয়োগকারীরা নগদ ১৫৯ কোটি ৭৩ লাখ ৫৩ হাজার ২৭৮ টাকা পাবে। তবে স্টক ডিভিডেন্ড না দেয়ায় কোম্পানিটির মূলধন বাড়বেনা।

ব্যাংক এশিয়া : ২০২০ অর্থবছরে ব্যাংকটি সংশ্লিষ্ট বিনিয়োগকারীদের জন্য ১০ শতাংশ ক্যাশ ডিভিডেন্ড ঘোষণা করেছে। অর্থাৎ এর মাধ্যমে কোম্পানিটির কাছে থেকে বিনিয়োগকারীরা নগদ ১১৬ কোটি ৫৯ লাখ ৬ হাজার ৮৬১টাকা পাবে। তবে স্টক ডিভিডেন্ড না দেয়ায় কোম্পানিটির মূলধন বাড়বেনা।

ব্র্যাক ব্যাংক : ২০২০ অর্থবছরে ব্যাংকটি সংশ্লিষ্ট বিনিয়োগকারীদের জন্য ১০ শতাংশ ক্যাশ এবং ৫ শতাংশ স্টক ডিভিডেন্ড ঘোষণা করেছে। অর্থাৎ ক্যাশ ডিভিডেন্ডের মাধ্যমে কোম্পানিটির কাছে থেকে বিনিয়োগকারীরা নগদ ১৩২ কোটি ৫৮ লাখ ৭৮ হাজার ৪৭৬ টাকা পাবে। স্টক ডিভিডেন্ডের মাধ্যমে কোম্পানিটির মূলধন বাড়বে ৬৬ কোটি ২৯ লাখ ৩৯ হাজার ২৩৮ টাকা।

সিটি ব্যাংক : ২০২০ অর্থবছরে ব্যাংকটি সংশ্লিষ্ট বিনিয়োগকারীদের জন্য ১৭.৫ শতাংশ ক্যাশ এবং ৫ শতাংশ স্টক ডিভিডেন্ড ঘোষণা করেছে। অর্থাৎ ক্যাশ ডিভিডেন্ডের মাধ্যমে কোম্পানিটির কাছে থেকে বিনিয়োগকারীরা নগদ ১৫২ কোটি ৪৫ লাখ ৭৯ হাজার ৯৯২ টাকা পাবে। স্টক ডিভিডেন্ডের মাধ্যমে কোম্পানিটির মূলধন বাড়বে ৫০ কোটি ৮১ লাখ ৯৩ হাজার ৩৩০ টাকা।

ঢাকা ব্যাংক : ২০২০ অর্থবছরে ব্যাংকটি সংশ্লিষ্ট বিনিয়োগকারীদের জন্য ৬ শতাংশ ক্যাশ এবং ৬ শতাংশ স্টক ডিভিডেন্ড ঘোষণা করেছে। অর্থাৎ ক্যাশ ডিভিডেন্ডের মাধ্যমে কোম্পানিটির কাছে থেকে বিনিয়োগকারীরা নগদ ৫৩ কোটি ৭৫ লাখ ২৩ হাজার ৪৪৬ টাকা পাবে। স্টক ডিভিডেন্ডের মাধ্যমে কোম্পানিটির মূলধন বাড়বে ৫৩ কোটি ৭৫ লাখ ২৩ হাজার ৪৪৬ টাকা।

ডাচ্-বাংলা ব্যাংক : ২০২০ অর্থবছরে ব্যাংকটি সংশ্লিষ্ট বিনিয়োগকারীদের জন্য ১৫ শতাংশ ক্যাশ এবং ১৫ শতাংশ স্টক ডিভিডেন্ড ঘোষণা করেছে। অর্থাৎ ক্যাশ ডিভিডেন্ডের মাধ্যমে কোম্পানিটির কাছে থেকে বিনিয়োগকারীরা নগদ ৮২ কোটি ৫০ লাখ টাকা পাবে। স্টক ডিভিডেন্ডের মাধ্যমে কোম্পানিটির মূলধন বাড়বে ৮২ কোটি ৫০ লাখ টাকা।

ইস্টার্ন ব্যাংক : ২০২০ অর্থবছরে ব্যাংকটি সংশ্লিষ্ট বিনিয়োগকারীদের জন্য ১৭.৫০ শতাংশ ক্যাশ এবং ১৭.৫০ শতাংশ স্টক ডিভিডেন্ড ঘোষণা করেছে। অর্থাৎ ক্যাশ ডিভিডেন্ডের মাধ্যমে কোম্পানিটির কাছে থেকে বিনিয়োগকারীরা নগদ ১৪২ কোটি ৬ লাখ ৪৯ হাজার ২০৯ টাকা পাবে। স্টক ডিভিডেন্ডের মাধ্যমে কোম্পানিটির মূলধন বাড়বে ১৪২ কোটি ৬ লাখ ৪৯ হাজার ২০৯ টাকা।

এক্সিম ব্যাংক : ২০২০ অর্থবছরে ব্যাংকটি সংশ্লিষ্ট বিনিয়োগকারীদের জন্য ৭.৫০ শতাংশ ক্যাশ এবং ২.৫০ শতাংশ স্টক ডিভিডেন্ড ঘোষণা করেছে। অর্থাৎ ক্যাশ ডিভিডেন্ডের মাধ্যমে কোম্পানিটির কাছে থেকে বিনিয়োগকারীরা নগদ ১০৫ কোটি ৯১ লাখ ৮৮ হাজার ৩০১ টাকা পাবে। স্টক ডিভিডেন্ডের মাধ্যমে কোম্পানিটির মূলধন বাড়বে ৩৫ কোটি ৩০ লাখ ৬২ হাজার ৭৬৭ টাকা।

ফার্স্ট সিকিউরিটিজ ইসলামী ব্যাংক : ২০২০ অর্থবছরে ব্যাংকটি সংশ্লিষ্ট বিনিয়োগকারীদের জন্য ৫ শতাংশ ক্যাশ এবং ৫ শতাংশ স্টক ডিভিডেন্ড ঘোষণা করেছে। অর্থাৎ ক্যাশ ডিভিডেন্ডের মাধ্যমে কোম্পানিটির কাছে থেকে বিনিয়োগকারীরা নগদ ৪৭ কোটি ৪৩ লাখ ৮০ হাজার ১০১ টাকা পাবে। স্টক ডিভিডেন্ডের মাধ্যমে কোম্পানিটির মূলধন বাড়বে ৪৭ কোটি ৪৩ লাখ ৮০ হাজার ১০১ টাকা।

আইএফআইসি ব্যাংক : ২০২০ অর্থবছরে ব্যাংকটি সংশ্লিষ্ট বিনিয়োগকারীদের জন্য ৫ শতাংশ স্টক ডিভিডেন্ড ঘোষণা করেছে। অর্থাৎ এর মাধ্যমে কোম্পানিটির মূলধন বাড়বে ৮০ কোটি ৯৯ লাখ ৩৬ হাজার ৯৩৪ টাকা।

ইসলামী ব্যাংক : ২০২০ অর্থবছরে ব্যাংকটি সংশ্লিষ্ট বিনিয়োগকারীদের জন্য ১০ শতাংশ ক্যাশ ডিভিডেন্ড ঘোষণা করেছে। অর্থাৎ এর মাধ্যমে কোম্পানিটির কাছে থেকে বিনিয়োগকারীরা নগদ ১৬০ কোটি ৯৯ লাখ ৯০ হাজার ৬৬৮
টাকা পাবে। তবে স্টক ডিভিডেন্ড না দেয়ায় কোম্পানিটির মূলধন বাড়বেনা।

যমুনা ব্যাংক : ২০২০ অর্থবছরে ব্যাংকটি সংশ্লিষ্ট বিনিয়োগকারীদের জন্য ১৭.৫০ শতাংশ ক্যাশ ডিভিডেন্ড ঘোষণা করেছে। অর্থাৎ এর মাধ্যমে কোম্পানিটির কাছে থেকে বিনিয়োগকারীরা নগদ ১৩১ কোটি ১১ লাখ ৪৪ হাজার ৮৮৭ টাকা পাবে। তবে স্টক ডিভিডেন্ড না দেয়ায় কোম্পানিটির মূলধন বাড়বেনা।

মার্কেন্টাইল ব্যাংক : ২০২০ অর্থবছরে ব্যাংকটি সংশ্লিষ্ট বিনিয়োগকারীদের জন্য ১০ শতাংশ ক্যাশ এবং ৫ শতাংশ স্টক ডিভিডেন্ড ঘোষণা করেছে। অর্থাৎ ক্যাশ ডিভিডেন্ডের মাধ্যমে কোম্পানিটির কাছে থেকে বিনিয়োগকারীরা নগদ ১০৩ কোটি ৩২ লাখ ১৭ হাজার ২৮ টাকা পাবে। স্টক ডিভিডেন্ডের মাধ্যমে কোম্পানিটির মূলধন বাড়বে ৫১ কোটি ৬৬ লাখ ৮ হাজার ৫১৪ টাকা।

মিউচ্যুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংক : ২০২০ অর্থবছরে ব্যাংকটি সংশ্লিষ্ট বিনিয়োগকারীদের জন্য ১০ শতাংশ স্টক ডিভিডেন্ড ঘোষণা করেছে। অর্থাৎ এর মাধ্যমে কোম্পানিটির মূলধন বাড়বে ৭৩ কোটি ৮৬ লাখ ৩২ হাজার ৪১৮ টাকা।

এনসিসি ব্যাংক : ২০২০ অর্থবছরে ব্যাংকটি সংশ্লিষ্ট বিনিয়োগকারীদের জন্য ৭.৫০ শতাংশ ক্যাশ এবং ৭.৫০ শতাংশ স্টক ডিভিডেন্ড ঘোষণা করেছে। অর্থাৎ ক্যাশ ডিভিডেন্ডের মাধ্যমে কোম্পানিটির কাছে থেকে বিনিয়োগকারীরা নগদ ৭০ কোটি ৯৪ লাখ ৪৪ হাজার ৮৬০ টাকা পাবে। স্টক ডিভিডেন্ডের মাধ্যমে কোম্পানিটির মূলধন বাড়বে ৭০ কোটি ৯৪ লাখ ৪৪ হাজার ৮৬০ টাকা।

এনআরবিসি ব্যাংক : ২০২০ অর্থবছরে ব্যাংকটি সংশ্লিষ্ট বিনিয়োগকারীদের জন্য ৭.৫ শতাংশ ক্যাশ এবং ৫ শতাংশ স্টক ডিভিডেন্ড ঘোষণা করেছে। অর্থাৎ ক্যাশ ডিভিডেন্ডের মাধ্যমে কোম্পানিটির কাছে থেকে বিনিয়োগকারীরা নগদ ৫২ কোটি ৬৮ লাখ ৮৭ হাজার ৭৪৮ টাকা পাবে। স্টক ডিভিডেন্ডের মাধ্যমে কোম্পানিটির মূলধন বাড়বে ৩৫ কোটি ১২ লাখ ৫৮ হাজার ৪৯৯ টাকা।

ওয়ান ব্যাংক : ২০২০ অর্থবছরে ব্যাংকটি সংশ্লিষ্ট বিনিয়োগকারীদের জন্য ৬ শতাংশ ক্যাশ এবং ৫.৫ শতাংশ স্টক ডিভিডেন্ড ঘোষণা করেছে। অর্থাৎ ক্যাশ ডিভিডেন্ডের মাধ্যমে কোম্পানিটির কাছে থেকে বিনিয়োগকারীরা নগদ ৫৩ কোটি ১২ লাখ ৭ হাজার ৮৪৩ টাকা পাবে। স্টক ডিভিডেন্ডের মাধ্যমে কোম্পানিটির মূলধন বাড়বে ৪৮ কোটি ৬৯ লাখ ৪০ হাজার ৫২২ টাকা।

প্রিমিয়ার ব্যাংক : ২০২০ অর্থবছরে ব্যাংকটি সংশ্লিষ্ট বিনিয়োগকারীদের জন্য ১২.৫০ শতাংশ ক্যাশ এবং ৭.৫০ শতাংশ স্টক ডিভিডেন্ড ঘোষণা করেছে। অর্থাৎ ক্যাশ ডিভিডেন্ডের মাধ্যমে কোম্পানিটির কাছে থেকে বিনিয়োগকারীরা নগদ ১২১ কোটি ২৮ লাখ ৭২ হাজার ৯৪০ টাকা পাবে। স্টক ডিভিডেন্ডের মাধ্যমে কোম্পানিটির মূলধন বাড়বে ৭২ কোটি ৭৭ লাখ ২৩ হাজার ৭৬৪ টাকা।

প্রাইম ব্যাংক : ২০২০ অর্থবছরে ব্যাংকটি সংশ্লিষ্ট বিনিয়োগকারীদের জন্য ১৫ শতাংশ ক্যাশ ডিভিডেন্ড ঘোষণা করেছে। অর্থাৎ এর মাধ্যমে কোম্পানিটির কাছে থেকে বিনিয়োগকারীরা নগদ ১৬৯ কোটি ৮৪ লাখ ২৫ হাজার ২১৬
টাকা পাবে। তবে স্টক ডিভিডেন্ড না দেয়ায় কোম্পানিটির মূলধন বাড়বেনা।

পূবালী ব্যাংক : ২০২০ অর্থবছরে ব্যাংকটি সংশ্লিষ্ট বিনিয়োগকারীদের জন্য ১২.৫ শতাংশ ক্যাশ ডিভিডেন্ড ঘোষণা করেছে। অর্থাৎ এর মাধ্যমে কোম্পানিটির কাছে থেকে বিনিয়োগকারীরা নগদ ১২৮ কোটি ৫৩ লাখ ৬৭ হাজার ৭৭৪ টাকা পাবে। তবে স্টক ডিভিডেন্ড না দেয়ায় কোম্পানিটির মূলধন বাড়বেনা।

শাহজালাল ইসলামী ব্যাংক : ২০২০ অর্থবছরে ব্যাংকটি সংশ্লিষ্ট বিনিয়োগকারীদের জন্য ৭ শতাংশ ক্যাশ এবং ৫ শতাংশ স্টক ডিভিডেন্ড ঘোষণা করেছে। অর্থাৎ ক্যাশ ডিভিডেন্ডের মাধ্যমে কোম্পানিটির কাছে থেকে বিনিয়োগকারীরা নগদ ৬৮ কোটি ৬০ লাখ ৬৪ হাজার ৬৩৫ টাকা পাবে। স্টক ডিভিডেন্ডের মাধ্যমে কোম্পানিটির মূলধন বাড়বে ৪৯ কোটি ৪৬ হাজার ১৬৮ টাকা।

সোস্যাল ইসলামী ব্যাংক : ২০২০ অর্থবছরে ব্যাংকটি সংশ্লিষ্ট বিনিয়োগকারীদের জন্য ৫ শতাংশ ক্যাশ এবং ৫ শতাংশ স্টক ডিভিডেন্ড ঘোষণা করেছে। অর্থাৎ ক্যাশ ডিভিডেন্ডের মাধ্যমে কোম্পানিটির কাছে থেকে বিনিয়োগকারীরা নগদ ৪৬ কোটি ৯০লাখ ৪ হাজার ২১২ টাকা পাবে। স্টক ডিভিডেন্ডের মাধ্যমে কোম্পানিটির মূলধন বাড়বে ৪৬ কোটি ৯০লাখ ৪ হাজার ২১২ টাকা।

সাউথইস্ট ব্যাংক : ২০২০ অর্থবছরে ব্যাংকটি সংশ্লিষ্ট বিনিয়োগকারীদের জন্য ১০ শতাংশ ক্যাশ ডিভিডেন্ড ঘোষণা করেছে। অর্থাৎ এর মাধ্যমে কোম্পানিটির কাছে থেকে বিনিয়োগকারীরা নগদ ১১৮ কোটি ৮৯ লাখ ৪০ হাজার ৫২২
টাকা পাবে। তবে স্টক ডিভিডেন্ড না দেয়ায় কোম্পানিটির মূলধন বাড়বেনা।

স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংক : ২০২০ অর্থবছরে ব্যাংকটি সংশ্লিষ্ট বিনিয়োগকারীদের জন্য ২.৫ শতাংশ ক্যাশ এবং ২.৫ শতাংশ স্টক ডিভিডেন্ড ঘোষণা করেছে। অর্থাৎ ক্যাশ ডিভিডেন্ডের মাধ্যমে কোম্পানিটির কাছে থেকে বিনিয়োগকারীরা নগদ ২৫ কোটি ১৪ লাখ ৯৭ হাজার ৬৯৭ টাকা পাবে। স্টক ডিভিডেন্ডের মাধ্যমে কোম্পানিটির মূলধন বাড়বে ২৫ কোটি ১৪ লাখ ৯৭ হাজার ৬৯৭ টাকা।

উত্তরা ব্যাংক : ২০২০ অর্থবছরে ব্যাংকটি সংশ্লিষ্ট বিনিয়োগকারীদের জন্য ১২.৫০ শতাংশ ক্যাশ এবং ২.৫০ শতাংশ স্টক ডিভিডেন্ড ঘোষণা করেছে। অর্থাৎ ক্যাশ ডিভিডেন্ডের মাধ্যমে কোম্পানিটির কাছে থেকে বিনিয়োগকারীরা নগদ ৬২ কোটি ৭৪ লাখ ২৫ হাজার ৯৮৭ টাকা পাবে। স্টক ডিভিডেন্ডের মাধ্যমে কোম্পানিটির মূলধন বাড়বে ৬২ কোটি ৭৪ লাখ ২৫ হাজার ৯৮৭ টাকা।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

Facebook Comments Box
(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});

Posted ১২:৫৪ অপরাহ্ণ | বুধবার, ২৬ মে ২০২১

bankbimaarthonity.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

এ বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ ক্যালেন্ডার

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০৩১
প্রধান সম্পাদক: মোহাম্মাদ মুনীরুজ্জামান
নিউজরুম:

মোবাইল: ০১৭১৫-০৭৬৫৯০, ০১৮৪২-০১২১৫১

ফোন: ০২-৮৩০০৭৭৩-৫, ই-মেইল: bankbima1@gmail.com

সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক কার্যালয়: পিএইচপি টাওয়ার, ১০৭/২, কাকরাইল, ঢাকা-১০০০।