শুক্রবার ১৯ এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৬ বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

নিরাপদ কৃষিপণ্য উৎপাদনে গ্যাপ নীতিমালা অনুমোদন

বিবিএনিউজ.নেট   |   সোমবার, ২১ ডিসেম্বর ২০২০   |   প্রিন্ট   |   267 বার পঠিত

নিরাপদ কৃষিপণ্য উৎপাদনে গ্যাপ নীতিমালা অনুমোদন

নিরাপদ কৃষিপণ্য উৎপাদনে উত্তম কৃষি চর্চা (এগ্রিকালচারাল প্র্যাকটিসেস-গ্যাপ) নীতিমালা করছে সরকার। সোমবার ‘বাংলাদেশ গুড এগ্রিকালচারাল প্র্যাকটিসেস নীতিমালা, ২০২০’ এর খসড়া মন্ত্রিসভা অনুমোদন দিয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে ভার্চুয়ালি এই বৈঠক হয়। গণভবন থেকে প্রধানমন্ত্রী ও মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রীরা সচিবালয় থেকে বৈঠকে অংশ নেন।বৈঠক শেষে সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম এ তথ্য জানিয়েছেন।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, ‘আমাদের দেশে এটা গুরুত্বপূর্ণ একটা বিষয়। নিরাপদ খাদ্যপণ্যের বিষয়টি গুরুত্বের সাথে বিবেচনায় নিয়ে উৎপাদনের শুরু থেকে সংগ্রহ ও সংগ্রহোত্তর প্রক্রিয়াকরণ, যেমন- মাঠ থেকে সংগ্রহ, প্যাকেজিং, পরিবহন ইত্যাদি পর্যায়ে উত্তম কৃষি চর্চা অনুসরণ করা প্রয়োজন। এটা আন্তর্জাতিকভাবে বিভিন্ন দেশ ও যারা আমাদের এখান থেকে (কৃষিপণ্য) ক্রয় করে তারা বারবার তাগিদ দিচ্ছে যে, আপনাদের গুড এগ্রিকালচারাল প্র্যাকটিসেস (গ্যাপ) নীতিমালা করতে হবে, না হলে আপনাদের এখান থেকে (পণ্য) নেব না।’

তিনি বলেন, ‘বিভিন্ন ধরনের আইটেম আমরা যখন বিভিন্ন দেশে রফতানি করি, এগুলো (উত্তম কৃষি চর্চা) নিয়ে কথাবার্তা হয়। চিংড়ির কথা বলি, চিংড়ি পরীক্ষার একটা ইনস্টিটিউট সাভারে আছে, যারা চিড়িং উৎপাদন করে তাদের ঘের থেকে স্যাম্পল পাঠায়, টেস্ট করে ওকে করলে সেটাই শুধুমাত্র বাইরে এক্সপোর্ট করা যায়।’

‘শুধু বাইরে নয়, দেশের ভেতরেও যেগুলো সাপ্লাই দেয়া হবে সেগুলো এই নীতিমালার অধীনে মান ঠিক করে নিতে হবে, ভেরিফাই করে নিতে হবে। এটার জন্যই গ্যাপ নীতিমালা হয়েছে।’

নীতিমালার উদ্দেশ্য তুলে ধরে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, ‘এটার কতগুলো উদ্দেশ্য আছে, সেগুলো হলো- নিরাপদ ও পুষ্টিমান সম্পন্ন ফসলের টেকসই উৎপাদন নিশ্চিত, পরিবেশ সহনীয় ফসল উৎপাদন নিশ্চিতকরণ এবং কর্মীর স্বাস্থ্য সুরক্ষা, নিরাপত্তা ও কল্যাণ সাধন করা।’

বিশ্বের সব দেশেই খাদ্য সংরক্ষণে অক্সাইড ব্যবহার করা হয় জানিয়ে খন্দকার আনোয়ারুল বলেন, ‘নির্ধারিত মাত্রায় এটা ব্যবহার করতে হবে। আমাদের সমস্যা হচ্ছে যারা উৎপাদন ও সরবরাহকারী বিভিন্ন রকমের পাউডার ব্যবহার করতে হয়। স্বাস্থ্যহানি যাতে না হয় সেই মাত্রায় এটা ব্যবহার করতে হবে।’

মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, ‘নীতিমালা অনুযায়ী খাদ্য শৃঙ্খলের সব স্তরে সুনির্দিষ্ট পদ্ধতি অনুসরণ করতে হবে। ভোক্তার স্বাস্থ্য সুরক্ষা করাও এই নীতিমালা অন্যতম উদ্দেশ্য।’

‘বীজ উৎপাদনে আমরা যাতে আরও উন্নতি করতে পারি সেই বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী নির্দেশনা দিয়েছেন। মোট বীজের চাহিদার ২৩-২৪ শতাংশ আমরা উৎপাদন করি। বাকিটা বাইরে থেকে আনতে হয়। প্রধানমন্ত্রী এ বিষয়ে তাগিদ দিয়েছেন।’

তিনি বলেন, ‘আর্সেনিক কতটুকু পর্যন্ত থাকলে আপনি গ্রহণ করতে পারবেন, এগুলো সবই এগ্রিকালচারাল গুড প্র্যাকটিসের মধ্যে চলে আসবে।’

মন্ত্রিপরিষদ সচিব আরও বলেন, ‘এটা (গ্যাপ নীতিমালা) যদি পুরোপুরি বস্তবায়ন করা যায়, তবে আমাদের বেড প্রিপারেশন (বীজ তলা তৈরি) থেকে শুরু করে মার্কেটিং ও ভোগ পর্যন্ত মিনিমাম স্ট্যান্ডার্ড মেইনটেইন করা যাবে।’

Facebook Comments Box
(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});

Posted ৪:৩৮ অপরাহ্ণ | সোমবার, ২১ ডিসেম্বর ২০২০

bankbimaarthonity.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

রডের দাম বাড়ছে
(11187 বার পঠিত)

আর্কাইভ ক্যালেন্ডার

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২
১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭২৮২৯৩০  
প্রধান সম্পাদক: মোহাম্মাদ মুনীরুজ্জামান
নিউজরুম:

মোবাইল: ০১৭১৫-০৭৬৫৯০, ০১৮৪২-০১২১৫১

ফোন: ০২-৮৩০০৭৭৩-৫, ই-মেইল: bankbima1@gmail.com

সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক কার্যালয়: পিএইচপি টাওয়ার, ১০৭/২, কাকরাইল, ঢাকা-১০০০।