শুক্রবার ২৪ মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ১০ জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

নিষ্ঠার সাথে করলে ক্ষতি কাটিয়ে উঠবে ইফাদ গ্রুপ : ডিএমডি

নিজস্ব প্রতিবেদক   |   বৃহস্পতিবার, ০৭ মে ২০২০   |   প্রিন্ট   |   653 বার পঠিত

নিষ্ঠার সাথে করলে ক্ষতি কাটিয়ে উঠবে ইফাদ গ্রুপ : ডিএমডি

ইফাদ গ্রুপের উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ইফাদ অটোস লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক তাসকিন আহমেদ এক ভিডিও বার্তায় বলেছেন, আমার দৃঢ় বিশ্বাস আমরা সকলে একসাথে হয়ে নিষ্ঠার সাথে যদি কাজ করতে পারি,তাহলে অল্প দিনের মধ্যেই আমরা এই ক্ষতি পুষিয়ে আবার শক্তিশালী ও লাভজনক অবস্থানে পৌঁছাতে পারবো। ক্রান্তিলগ্নর এই সময় আমার প্রয়োজন আপনাদের সহযোগিতা।সকলকে যোদ্ধার ভূমিকা নিতে হবে।নিজের কোম্পানির একেকটি টাকা সহনশীলতার সাথে খরচ করতে হবে।নিজের পরিবারকে সুস্থ করে তুলতে আগামী মাসগুলোতে ২শ ভাগ কর্মপ্রয়াস দেখাতে হবে।
তিনি বলেন, করোনার প্রকোপে দেশের প্রতিটি শিল্পই প্রচণ্ড ক্ষতির শিকার। এ নিয়ে সন্দেহের কিছু নেই। কিন্তু এ ক্ষতিকে মেনেই সবাই যদি নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের কর্মীদের পাশে নিয়ে সম্মিলিতভাবে চেষ্টা করে তাহলে সহজেই ঘুরে দাঁড়ানো সম্ভব হবে। আর সব প্রতিষ্ঠান ঘুরে দাঁড়ালে আপন শক্তিতে ফিরবে দেশের অর্থনীতিও।
ভিডিও বার্তায় ইফাদ গ্রুপের ডিএমডি ও ইফাদ অটোসের এমডি তাসকিন আহমেদ বলেন, আজকে সমগ্র পৃথিবী করোনাভাইরাসের কারণে স্থবির হয়ে পড়েছে। আমাদের প্রিয় দেশটিও এ থেকে রেহাই পায়নি। এই ভাইরাস জাতি,ধর্ম,বর্ণ নির্বিশেষে সারা বিশ্বে ছড়িয়ে পড়েছে। দিন দিন বাংলাদেশ্ েসংক্রমণ বৃদ্ধি পাচ্ছে।
তিনি গ্রুপের সব সদস্যকে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের দেওয়া নির্দেশনাবলী কঠোরভাবে মেনে চলা; নিজেকে এবং পরিবারকে পরিস্কার-পরিচ্ছন্ন রাখা এবং পরিবারের বয়োজ্যেষ্ঠদের প্রতি বিশেষ যত্নশীল হওয়ার পরামর্শ দেন।
তাসকিন আহমেদ বলেন, গত দেড় মাস ধরে সারা বাংলাদেশের মানুষ সামাজিক ও আর্থিকভাবে ভীষণ ক্ষতিগ্রস্ত। ব্যবসা-বাণিজ্য, কৃষিখাত সকল কিছুই মুখ থুবড়ে পড়েছে। এই সঙ্কটময় মুহূর্তে আমরা সবাই দুঃশ্চিন্তাগ্রস্ত যে, আমাদের সামনের দিনগুলো কেমন হবে, কীভাবে সংসার চলবে, আমাদের চাকরির-ই-বা কী হবে।
তিনি গ্রুপের কর্মীদের আশ্বাস্ত করে বলেন, এই দুঃসময়ে আপনাদের মনে করিয়ে দিতে চাই, আপনারা কেউ একা নন। আমরা আপনার ও আপনার পরিবারের সদস্যদের পাশে আছি। কারণ নিজ ঘরের বাইরে আমাদের এক বিশাল ইফাদ পরিবার রয়েছে। আর আপনারা প্রত্যেকই এই পরিবারের সদস্য। শ্রদ্ধেয় চেয়ারম্যান সাহেব আপনাদেরকে দুঃশ্চিন্তা করতে বারণ করেছেন। ইনশাল্লাহ,আমরা সকলে মিলে এই সঙ্কটময় মুহূর্ত কাটিয়ে উঠবোই।’
তাসকিন আহমেদ বলেন, দীর্ঘ ৩৫ বছর আগে আমাদের শ্রদ্ধেয় চেয়ারম্যান সাহেব মুষ্টিমেয় কিছু সহযোগী নিয়ে ইফাদের যাত্রা শুরু করেন। তবে এই এতগুলো বছরের পথচলা মোটেও মসৃণ ছিল না। জীবনের শত প্রতিকূলতার মধ্যে সেই কিছু সময় কর্মকর্তা-কর্মচারীদের নিরলস প্রচেষ্টায় আজ ইফাদ পরিবার ৩৫ গুণেরও বেশি উচ্চতায় পৌঁছেছে। তাদেরই হাত ধরে জেনেছি, পরিবার কি জিনিস। আজকের এই ইফাদ পরিবার আমাদের সকলের আন্তরিক চেষ্টা, রক্ত, ঘাম ঝরানো কষ্টের ফল। এই পরিবার তো এত সহজে মচকে যাওয়ার বা ভেঙ্গে পড়ার নয়।
আপনারা সকলেই জানেন, ২০১৯ সালের পুরোটা জুড়ে ব্যবসায় কি মন্দাভাব গেছে। গাড়ি বিক্রি ও কিস্তি আদায় দুটোই নিম্নমুখী ছিল। ব্যবসায় মোটেও আশানারুপ লাভ করা যায়নি। সকল প্রতিকূলতার মধ্যেও আমরা ঘর সংসার চালিয়ে নিয়েছি।
২০২০ সালের শুরুটা ভাল হলেও হঠাৎ করে করোনাভাইরাসের এই মহামারিতে পুরো দেশ আজ অচল হয়ে পড়েছে। মার্চ, এপ্রিলের পর মনে হচ্ছে মে মাসটাও এর মধ্য দিয়েই যাবে।
আপনারা সবাই জানেন, আমাদের কোম্পানি একটা অস্বাভাবিক ক্ষতির মধ্যে পড়ে গেছে। সামনের দিনগুলোর কথা ভেবে আমার মতো আপনারাও চিন্তাগ্রস্ত হয়ে পড়েছেন। এই এক অস্বাভাবিক ক্রান্তিলগ্নে আমি আপনাদের আশ্বাস্ত করতে চাই, ভয় পাবেন না। আমরা সবাই আপনাদের সাথে আছি।
আমার বিশ্বাস আমরা সবাই মিলে আগামী ৬ থেকে ৯ মাসের মধ্যে এই ক্ষতি পুষিয়ে নিতে পারবো ইনশাল্লাহ। আমরা বাঙালি, আমরা খেটে খাওয়া মানুষ। মনোবল হারালে চলবে না।
এখন সময় এসেছে বাস্তবতাকে বুঝার ও আগামী দিনগুলোতে কোম্পানির ক্ষতি পুষিয়ে নেওয়ার। আমরা ম্যানেজমেন্ট পর্যায়ে সর্বক্ষণ পরিকল্পনা করছি কীভাবে আগামী দিনগুলোতে এই ক্ষতি পুষিয়ে নেওয়া যায়।
মনে রাখবেন সৃষ্টিকর্তা বলেছেন, তোমরা চেষ্টা করো,আমি তোমাদের সহায়ক হবো। মন ভাঙ্গার কোনো কারণ নেই। আমি আমার ইফাদ পরিবার, আমার কোম্পানিকে অনেক ভালবাসি। আমি জানি, আপনারা প্রত্যেকেই আমাদের কোম্পানিকে আমার মতোই ভালবাসেন। চলুন আমরা সবাই একসাথে যুদ্ধ ঘোষণা করি। আমাদের প্রাণপ্রিয় কোম্পানিকে নিজেদের সর্বোচ্চটা দিয়ে সুস্থ করে তুলি। ইনশাল্লাহ, আমাদের সকলের প্রচেষ্টায় এই মহাদুর্যোগ কাটিয়ে উঠতে পারবো। আপনারা সবাই নিজ নিজ স্থানে অবস্থান করুন, সুস্থ থাকুন। বাবা,মা, সন্তানসহ পরিবারের সবার প্রতি খেয়াল রাখুন। আমি আশা করি, অতিসত্বর আপনাদের সঙ্গে আমার দেখা হবে।

Facebook Comments Box
(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});

Posted ৩:৩৯ অপরাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, ০৭ মে ২০২০

bankbimaarthonity.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

রডের দাম বাড়ছে
(11231 বার পঠিত)

আর্কাইভ ক্যালেন্ডার

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০৩১
প্রধান সম্পাদক: মোহাম্মাদ মুনীরুজ্জামান
নিউজরুম:

মোবাইল: ০১৭১৫-০৭৬৫৯০, ০১৮৪২-০১২১৫১

ফোন: ০২-৮৩০০৭৭৩-৫, ই-মেইল: bankbima1@gmail.com

সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক কার্যালয়: পিএইচপি টাওয়ার, ১০৭/২, কাকরাইল, ঢাকা-১০০০।