• পুঁজিবাজারে আরও সাড়ে ৭ হাজার কোটি টাকা মূলধন বেড়েছে

    নিজস্ব প্রতিবেদক | ২৮ আগস্ট ২০২১ | ১:১৯ অপরাহ্ণ

    পুঁজিবাজারে আরও সাড়ে ৭ হাজার কোটি টাকা মূলধন বেড়েছে
    apps

    বিদায়ী সপ্তাহে দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) বাজার মূলধন সাড়ে ৭ হাজার কোটি টাকার ওপরে বেড়ে গেছে। এতে চার সপ্তাহে ডিএসইর বাজার মূলধন বাড়লো ২৩ হাজার কোটি টাকার ওপরে। গত সপ্তাহের শেষ কার্যদিবস বৃহস্পতিবার লেনদেন শেষে ডিএসইর বাজার মূলধন দাঁড়িয়েছে ৫ লাখ ৫৭ হাজার ৫০৯ কোটি টাকা। যা তার আগের সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসে ছিল ৫ লাখ ৪৯ হাজার ৭২১ কোটি টাকা। অর্থাৎ গেল সপ্তাহে ডিএসইর বাজার মূলধন বেড়েছে ৭ কোটি ৭৮৮ কোটি টাকা। আগের দুই সপ্তাহে বাজার মূলধন বাড়ে ১৫ কোটি ৩১৭ কোটি টাকা। এ হিবেসে টানা তিন সপ্তাহের উত্থানে বাজার মূলধন বাড়লো ২৩ হাজার ১০৫ কোটি টাকা। এর মাধ্যমে ডিএসইর বাজার মূলধন এযাবতকালের মধ্যে সর্বোচ্চ অবস্থানে রয়েছে।

    বাজার মূলধন বাড়া বা কমার অর্থ তালিকাভুক্ত প্রতিষ্ঠানগুলোর শেয়ার ও ইউনিটের দাম সম্মিলিতভাবে ওই পরিমাণ বেড়েছে বা কমেছে। অর্থাৎ বাজার মূলধন বাড়লে বিনিয়োগকারীদের বিনিয়োগ করা অর্থের পরিমাণও বেড়ে যায়।

    Progoti-Insurance-AAA.jpg

    এদিকে গত সপ্তাহজুড়ে ডিএসইতে লেনদেনে অংশ নেয়া ২১৮টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম বেড়েছে। বিপরীতে দাম কমেছে ১৩৯টির। আর ২১টির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে।

    এতে গত সপ্তাহে ডিএসইর প্রধান মূল্যসূচক ডিএসইএক্স বেড়েছে ৯০ দশমিক ৭০ পয়েন্ট বা ১ দশমিক ৩৪ শতাংশ। আগের সপ্তাহে সূচকটি বাড়ে ৬১ দশমিক ২৩ পয়েন্ট বা দশমিক ৯১ শতাংশ। এর মাধ্যমে ইতিহাসের সর্বোচ্চ অবস্থায় অবস্থান করছে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের প্রধান মূল্যসূচক ডিএসইএক্স। মূল্যসূচকের ভুল গণনা বন্ধ করতে ২০১৩ সালের ২৭ জানুয়ারি নতুন সূচক ডিএসইএক্স চালু করে ডিএসই। ৪০৫৫ দশমিক ৯০ পয়েন্ট দিয়ে শুরু হওয়া সূচকটি এখন ৬ হাজার ৮৫১ দশমিক ৩২ পয়েন্ট অবস্থান করছে।


    প্রধান মূল্যসূচক নতুন উচ্চতায় পৌঁছানোর পাশাপাশি গেলো সপ্তাহে বাছাই করা ভালো কোম্পানি নিয়ে গঠিত ডিএসই-৩০ সূচকও এখন ইতিহাসের সর্বোচ্চ অবস্থানে রয়েছে। গেলো সপ্তাহে এই সূচকটি বেড়েছে ২৯ দশমিক ৮৯ পয়েন্ট বা ১ দশমিক ২৩ শতাংশ। আগের সপ্তাহে সূচকটি কমে ছিল ৪ দশমিক শূণ্য ৩ পয়েন্ট বা দশমিক ১৭ শতাংশ।

    অপরদিকে ইসলামী শরিয়াহ ভিত্তিতে পরিচালিত কোম্পানি নিয়ে গঠিত ডিএসই শরিয়াহ্ সূচকও ইতিহাসের সর্বোচ্চ অবস্থানে অবস্থান করছে। গত সপ্তাহজুড়ে সূচকটি বেড়েছে ২৫ দশমিক ৮৬ পয়েন্ট বা ১ দশমিক ৭৭ শতাংশ। আগের সপ্তাহে সূচকটি বাড়ে ২ দশমিক ৩০ পয়েন্ট বা দশমিক ১৬ শতাংশ।

    গত সপ্তাহের প্রতি কার্যদিবসে ডিএসইতে গড়ে লেনদেন হয়েছে ২ হাজার ৬০৮ কোটি ৪৮ লাখ টাকা। আগের সপ্তাহে প্রতিদিন গড়ে লেনদেন হয় ২ হাজার ৫৭৭ কোটি ৯৬ লাখ টাকা। অর্থাৎ প্রতি কার্যদিবসে গড় লেনদেন বেড়েছে ৩০ কোটি ৫২ লাখ টাকা বা ১ দশমিক ১৮ শতাংশ।

    আর গত সপ্তাহজুড়ে ডিএসইতে মোট লেনদেন হয়েছে ১৩ হাজার ৪২ কোটি ৪৩ লাখ টাকা। আগের সপ্তাহে লেনদেন হয় ১০ হাজার ৩১১ কোটি ৮৫ লাখ টাকা। সে হিসাবে মোট লেনদেন বেড়েছে ২ হাজার ৭৩০ কোটি ৫৮ লাখ টাকা বা ২৬ দশমিক ৪৮ শতাংশ। মোট লেনদেন বেশি হারে বাড়ার কারণ গত সপ্তাহের আগের সপ্তাহে শেয়ারবাজারে এক কার্যদিবসে কম লেনদেন হয়।

    অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) বিদায়ী সপ্তাহে টাকার পরিমাণে লেনদেন হয়েছে ৫০৫ কোটি ৪০ লাখ ৯৬ হাজার ৬৬ টাকার। আর আগের সপ্তাহে লেনদেন হয়েছিল ৪০৭ কোটি ৩৩ লাখ ৬৯ হাজার ৯৪৬ টাকার। অর্থাৎ সপ্তাহের ব্যবধানে সিএসইতে লেনদেন ৯৮ কোটি ৭ লাখ ২৬ হাজার ১২০ টাকা বা ২৪ শতাংশ বেড়েছে।

    সপ্তাহটিতে সিএসইর সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ২১৭.৪৩ পয়েন্ট বা ১.১০ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৯ হাজার ৯৩০.৬৭ পয়েন্টে। সিএসইর অপর সূচকগুলোর মধ্যে সিএসসিএক্স ১২৯.১২ পয়েন্ট বা ১.০৯ শতাংশ, সিএসই-৩০ সূচক ১১০.৬০ পয়েন্ট বা ০.৭৬ শতাংশ, সিএসই-৫০ সূচক ১০.৫৪ পয়েন্ট বা ০.৭৪ শতাংশ এবং সিএসআই ১৯.৯৬ পয়েন্ট বা ১.৬০ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে যথাক্রমে ১১ হাজার ৯৪৯.৬৪ পয়েন্ট, ১৪ হাজার ৫৮৮.৯৯ পয়েন্টে, এক হাজার ৪৩৮.৪৪ পয়েন্টে এবং এক হাজর ২৬৭ পয়েন্টে।

    সপ্তাহজুড়ে সিএসইতে ৩৪৬টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট লেনদেনে অংশ নিয়েছে। প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে ১৯৩টির বা ৫৫.৭৮ শতাংশের দর বেড়েছে, ১৩৫টির বা ৩৯.০২ শতাংশের কমেছে এবং ১৮টির বা ৫.২০ শতাংশের দর অপরিবর্তিত রয়েছে।

    Facebook Comments Box

    বাংলাদেশ সময়: ১:১৯ অপরাহ্ণ | শনিবার, ২৮ আগস্ট ২০২১

    bankbimaarthonity.com |

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    Archive Calendar

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২
    ১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
    ২০২১২২২৩২৪২৫২৬
    ২৭২৮২৯৩০  
  • ফেসবুকে ব্যাংক বীমা অর্থনীতি