বুধবার ২৯ মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ১৫ জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

৭১ কোটি টাকা আত্মসাৎ

ফারইস্টের সাবেক পর্ষদসহ ৯ জনের বিরুদ্ধে দুদকের মামলা

নিজস্ব প্রতিবেদক   |   মঙ্গলবার, ০৮ মার্চ ২০২২   |   প্রিন্ট   |   163 বার পঠিত

ফারইস্টের সাবেক পর্ষদসহ ৯ জনের বিরুদ্ধে দুদকের মামলা

পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত বীমা খাতের প্রতিষ্ঠান ফারইস্ট ইসলামী লাইফ ইন্স্যুরেন্সের সাবেক পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যানসহ ৯ পরিচালক ও মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা হেমায়েত উল্লাহের বিরুদ্ধে ৭০ কোটি ৬৯ লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগে পৃথক দু’টি মামলা দায়েরের অনুমোদন দিয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

মঙ্গলবার (৮ মার্চ) সকালে মামলার অনুমোদন দিয়েছে কমিশন। অনুমোদিত মামলার আসামিরা হলেন-ফারইস্ট ইসলামী লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানির সাবেক চেয়ারম্যান, সাবেক পরিচালক কে এম খালেদ, অডিট কমিটির চেয়ারম্যান শাহরিয়ার খালেদ, পরিচালক এম এ খালেক, পরিচালক মো. মিজানুর রহমান, পরিচালক ফরিদউদ্দিন এফসিএ, পরিচালক আসাদ খান, কোম্পানি সেক্রেটারি সৈয়দ আবদুল আজিজ এবং অপসারিত মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা হেমায়েত উল্লাহ।

গণমাধ্যমকে এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন দুদকের জনসংযোগ কর্মকর্তা ও উপ-পরিচালক মুহাম্মদ আরিফ সাদেক। তিনি জানান, কমিশনের অনুমোদনের ফলে যে কোন সময় অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে দুদকের পক্ষ থেকে মামলা দু’টি রেকর্ড করা হতে পারে।তিনি আরও জানান, দুদকের অনুসন্ধানে নানা অনিয়ম, জালিয়াতি, প্রতারণা ও অর্থ আত্মসাতের চাঞ্চল্যকর তথ্য বেরিয়ে এসেছে। অনুসন্ধানী কর্মকর্তার তৈরি করা প্রতিবেদনের ভিত্তিতে পৃথক ২টি মামলা করছে দুদক।
দুদকের মামলার অভিযোগে উল্লেখ, প্রাইম এশিয়া ফাউন্ডেশন এবং পিএফআই প্রোপার্টিজ লিমিটেড নামক দু’টি প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে ৭০ কোটি ৬৯ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে ফারইস্ট ইসলামী লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানির সাবেক পরিচালনা পর্ষদ। ১৫৮তম পর্ষদ সভার ভুয়া সার-সংক্ষেপ তৈরি করে সেটির বরাত দিয়ে হাতিয়ে নেয়া হয় এ অর্থ। ফারইস্ট ইসলামী লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানির সাবেক চেয়ারম্যান ও মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা হেমায়েত উল্লাহসহ ৯ পরিচালক-কর্মকর্তা পরস্পর যোগসাজশে এ অর্থ হাতিয়ে নিয়েছেন ।

দুদকের উপ-পরিচালক (অনুসন্ধান ও তদন্ত-৩) ড. মোহাম্মদ জহিরুল হুদার নেতৃত্বে তিন সদস্যের একটি টিম অভিযোগটি অনুসন্ধান করেন। টিমর অপর সদস্যরা হলেন, সহকারি পরিচালক শারিকা ইসলাম ও সহকারি পরিচালক বায়েজিদুর রহমান খান। অনুসন্ধান প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়, প্রাপ্ত রেকর্ডপত্রের ভিত্তিতে পারষ্পরিক যোগসাজশে ফারইস্ট ইসলামী লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানির লিমিটেড (এফআইএলআইসিএল) এর ১৫৮তম পর্ষদ সভার কার্য বিবরণীর ভুয়া সার-সংক্ষেপ সৃজন করে এ সার-সংক্ষেপের বরাত দিয়ে সোশ্যাল ইসলামী ব্যাংক লিমিটেডের ফরেন এক্সচেঞ্জ শাখার, মতিঝিলে ‘এফআইএলআইসিএল’র নামে রক্ষিত ২২টি এমটিডিআর জামানত রেখে আত্মসাতের উদ্দেশ্যে পিএফআই প্রপার্টিজ লিমিটেডকে ৪০ কোটি টাকার ঋণ/বিনিয়োগ সুবিধা দেয়ার মাধ্যমে ফারইস্ট ইসলামী লাইফ ইন্স্যুরেন্সের ৭০ কোটি ৮৩ লাখ ৬৯ হাজার ৪৩৯ টাকা আত্মসাত করেন। যা ১৮৬০ সালের দন্ডবিধি ১০৯ ও ৪০৯ ধারা এবং মানিলন্ডারিং প্রতিরোধ আইন,২০১২ এর ৪(২) ধারায় শাস্তিযোগ্য অপরাধ।

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, এম এ খালেক, কে এম খালেদ, ফরিদউদ্দিন, মিজানুর রহমান, আসাদ খান এবং এম এ খালেকের পুত্র শাহরিয়ার খালেদ একই সঙ্গে ফারইস্ট ইসলামী লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেড এবং প্রাইম এশিয়া ফাউন্ডেশনের পরিচালনা পর্ষদ সদস্য। সুতরাং ফারইস্টের চেয়ারম্যান, মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা হেমায়তে উল্লাহ, কোম্পানি সেক্রেটারি সৈয়দ আবদুল আজিজ এবং এফআইএলআইসিএল ও প্রাইম এশিয়া ফাউন্ডেশনের পরিচালক এম এ খালেক, কে এম খালেদ, ফরিদউদ্দিন, মিজানুর রহমান, আসাদ খান ও শাহরিয়ার খালেদ পরষ্পর যোগসাজশের মাধ্যমে আত্মসাতের উদ্দেশ্যে প্রতিষ্ঠানটির ৪০ কোটি টাকা তাদেরই মালিকানাধীন প্রতিষ্ঠান পিএফআই প্রোপার্টিজ লিমিটেডকে ঋণ দিয়েছেন। পরবর্তীতে এ ঋণ পরিশোধ না করে আত্মসাত করেন। এর ফলে ফারইস্ট লাইফ ইন্স্যুরেন্স লিমিটেডের মোট ৭০ কোটি ৮৩ লাখ ৬৯ হাজার ৩৪৯ টাকার আর্থিক ক্ষতি হয়েছে।

উল্লেখ্য, ফারইস্ট ইসলামী লাইফের ২০১৫ থেকে ২০১৮ সালের আর্থিক প্রতিবেদনে দেয়া আয় ব্যয়ের তথ্য পর্যালোচনা করে ২০২০ সালের ৭ সেপ্টেম্বর ‘আয় ও বিনিয়োগের ১৪শ’ কোটি টাকার হদিস নেই: বীমা দাবি পাচ্ছে না ফারইস্ট ইসলামী লাইফের গ্রাহকরা’ শীর্ষক সংবাদ প্রকাশ করে ইন্স্যুরেন্সনিউজবিডি। একই বছরের ২৪ জুন ‘সাড়ে ১৪ কোটি টাকার জমিতে বালু ফেলতেই খরচ ১৪২ কোটি টাকা’ শিরোনামে সংবাদ প্রকাশ করে এই অনলাইন পোর্টাল।

এসব সংবাদ আমলে নিয়ে ফারইস্ট ইসলামী লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানিতে বিশেষ নিরীক্ষক নিয়োগ ও দুর্নীতির তদন্ত শুরু করে পুঁজিবাজারের নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ এন্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) এবং সরকারের আর্থিক গোয়েন্দা সংস্থা বাংলাদেশ ফাইনান্সিয়াল ইন্টেলিজেন্স ইউনিট (বিএফআইইউ)। এরই ধারাবাহিকতায় ১ সেপ্টেম্বর ২০২১ বীমা কোম্পানিটিতে নতুন পরিচালনা পর্ষদ গঠন করে পুঁজিবাজারের নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিএসইসি।

Facebook Comments Box
(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});

Posted ৫:৪১ অপরাহ্ণ | মঙ্গলবার, ০৮ মার্চ ২০২২

bankbimaarthonity.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আর্কাইভ ক্যালেন্ডার

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০৩১
প্রধান সম্পাদক: মোহাম্মাদ মুনীরুজ্জামান
নিউজরুম:

মোবাইল: ০১৭১৫-০৭৬৫৯০, ০১৮৪২-০১২১৫১

ফোন: ০২-৮৩০০৭৭৩-৫, ই-মেইল: bankbima1@gmail.com

সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক কার্যালয়: পিএইচপি টাওয়ার, ১০৭/২, কাকরাইল, ঢাকা-১০০০।