শনিবার ১৫ জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ১ আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠানের মাধ্যমে জাতীয় চা দিবস পালিত

নিজস্ব প্রতিবেদক   |   শনিবার, ০৪ জুন ২০২২   |   প্রিন্ট   |   243 বার পঠিত

বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠানের মাধ্যমে জাতীয় চা দিবস পালিত

‘চা দিবসের সংকল্প, সমৃদ্ধ চা শিল্প’ প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে দেশে দ্বিতীয়বারের মতো জাতীয় চা দিবস-২০২২ পালন করা হয়েছে। এ উপলক্ষে শনিবার (৪ জুন) রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি জাতীয় চা দিবস-২০২২ এর উদ্বোধন করেন। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমেদ। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ চা বোর্ডের চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল মো. আশরাফুল ইসলাম, এনডিসি, পিএসসি। এছাড়া অন্যান্যের মধ্যে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশীয় চা সংসদ এর সভাপতি এম শাহ আলম, টি ট্রেডার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ এর সভাপতি ওমর হান্নান ও এফবিসিসিআইএর সভাপতি মো. জসিম উদ্দীন। অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব তপন কান্তি ঘোষ।

অনুষ্ঠানে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান, সংগঠনকে সম্মাননা প্রদান করেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি। শুরুতে সম্মাননা গ্রহণ করেন বাংলাদেশ চা অ্যাসোসিয়েশনের চেয়ারম্যান এম শাহ আলম, টি ট্রেডার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ এর চেয়ারম্যান ওমর হান্নান। এছাড়া অন্যান্যর মধ্যে সম্মাননা গ্রহণ করেন, ন্যাশনাল টি কোম্পানির লিমিটেডের চেয়ারম্যান। তার পক্ষে সম্মাননা স্মারক গ্রহণ করেন ন্যাশনাল টি কোম্পানির ব্যবস্থাপনা পরিচালক এইচ এস এম জিয়াউল আহসান।

ইস্পাহানি টি লিমিটেডের পক্ষে ব্যবস্থাপনা পরিচালক মির্জা সালমান ইস্পাহানি, ডানকান ব্রাদার্স এর পক্ষে নির্বাহী চেয়ারম্যান ইমরান আহমেদ,আবুল খায়ের কনজিউমার প্রোডাক্টস এর পক্ষে নির্বাহী পরিচালক বীর মুক্তিযোদ্ধা, ব্রি. জে. (অব.) শহীদুল্লাহ চৌধুরী, দি কনসোলিটেড টি এন্ড ল্যান্ডস কোম্পানির মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা এস এ এ মাশরুর, কাজী অ্যান্ড কাজী টি স্টেটের পক্ষে এনাম আহমেদ পরিচালক জেমকন গ্রুপ, সিটি গ্রুপের পক্ষে নির্বাহী পরিচালক জাফর উদ্দিন ছিদ্দিক, ইউনিলিভার টি বাংলাদেশ লিমিটেডের পক্ষে জেনারেল ম্যানেজার দেব আনন্দ, গড গিফ্ট টি ফ্যাক্টরি ওনার্স অ্যাসাসিয়েশনের সহ-সভাপতি সৈয়দ আবুল মনসুর, টি প্ল্যান্টার্স অ্যান্ড ট্রেডার্স অ্যাসোসিয়েশনের পক্ষে সহ-সভাপতি সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী, বাংলাদেশ স্মল টি গার্ডের ওনার্স অ্যাসোসিয়েশনের পক্ষে সভাপতি আমিনুল হক খোকন। এছাড়া অনুষ্ঠানে আগত অতিথিদের শুভেচ্ছা স্মারক প্রদান করেন বাংলাদেশ চা বোর্ডের চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল মো. আশরাফুল ইসলাম, এনডিসি, পিএসসি।

এছাড়া অনুষ্ঠানে ‘বঙ্গবন্ধু ও চা শিল্প’ শীর্ষক একটি ডকুমেন্টারি এবং ‘বঙ্গবন্ধু ও চা শিল্প’ শিরোনামে একটি লেজার শো প্রদর্শন করা হয়। আলোচনা সভা শেষে বাণিজ্য মন্ত্রীসহ অন্যান্য অতিথিগন চা মেলা ও বঙ্গবন্ধু প্যাভিলিয়ন পরিদর্শন করেন। চা মেলায় বাংলাদেশ চা বোর্ডের গবেষণা প্রতিষ্ঠান বিটিআরআই কর্তৃক বিভিন্ন ভ্যালু এডেড টি এবং বাংলাদেশ চা বোর্ডের আওতাধীন শ্রীমঙ্গলস্থ টি মিউজিয়ামে রক্ষিত চা শিল্পের দুর্লভ উপকরণ প্রদর্শন, চা শ্রমিকদের ঐতিহ্য, সংস্কৃতি ও জীবনধারা উপস্থাপন করা হয়। চা মেলাতে দেশের শীর্ষস্থানীয় চা কোম্পানিসমূহও তাদের চায়ের ব্যান্ড উপস্থাপন করেন। দিনব্যাপী দর্শনার্থীদের জন্য চা মেলা চলে।

জাতীয় চা দিবস উদযাপনের অংশ হিসেবে ঢাকার পাশাপাশি দেশের চা উৎপাদনকারী অঞ্চল যথা-চট্টগ্রাম অঞ্চল, সিলেট অঞ্চল এবং উত্তরাঞ্চলের পঞ্চগড় ও লালমনিরহাট জেলায় বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। চট্টগ্রামস্থ চা বোর্ডের প্রধান কার্যালয়, মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলস্থ বিটিআরআইতে এবং উত্তরাঞ্চলের পঞ্চগড় ও লালমনিরহাট জেলায় বিভিন্ন অনুষ্ঠান করা হয়। উল্লেখ্য, চা দিবস উপলক্ষ্যে পঞ্চগড় জেলা প্রশাসন প্রাঙ্গনে একটি চা মেলার আয়োজন করা হয়। জাতীয় চা দিবসের অনুষ্ঠান প্রচার ও প্রচারণার লক্ষ্যে ঢাকা ও চা উৎপাদনকারী অঞ্চল-চট্টগ্রাম, শ্রীমঙ্গল, উত্তরাঞ্চলের পঞ্চগড় ও লালমনিরহাট জেলা সিটি ব্র্যান্ডিং করা হয়।

উল্লেখ্য, ১৮৫৪ সালে সর্বপ্রথম সিলেটের মালনী ছড়া চা বাগানে বাণিজ্যিকভাবে চা উৎপাদনের মাধ্যমে বাংলাদেশে চা শিল্পের যাত্রা শুরু হয়। তবে চা শিল্পে সাফল্য আসে ১৯৫৭ সাল থেকে। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ৪ জুন ১৯৫৭ সাল হতে ২৩ অক্টোবর ১৯৫৮ সাল পর্যন্ত চা বোর্ডের চেয়ারম্যানপদে অধিষ্ঠিত ছিলেন। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর জন্ম শতবার্ষিকীতে চা শিল্পে তার অসামান্য অবদান ও চা বোর্ডের চেয়ারম্যান হিসেবে তার যোগদানের তারিখকে স্মরণীয় করে রাখতে এবং দেশের সামগ্রিক অর্থনৈতিক উন্নয়নে চা শিল্পের ভূমিকা বিবেচনায় ২০ জুলাই ২০২০ মন্ত্রীসভার বৈঠকে ৪ জনুকে ‘জাতীয় চা দিবস’ ঘোষণা করা হয়।

জাতীয় চা দিবস উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী পৃথক পৃথক বাণী দিয়েছেন। রাষ্ট্রপতি তার বাণীতে বলেন, চা বাংলাদেশের সম্ভাবনাময় শিল্প হিসেবে সুপ্রতিষ্ঠিত। সুদীর্ঘ ১৮০ বছর ধরে বাংলাদেশের ইতিহাস ও ঐতিহ্যের সাথে চা শিল্প গভীরভাবে জড়িয়ে আছে। তিনি বলেন, ‘এক সময় চা ছিল আমাদের অন্যতম রপ্তানি পণ্য। পরবর্তী সময়ে অভ্যন্তরীণ চাহিদা বৃদ্ধির ফলে চা রপ্তানি কমে গেলেও সরকার চায়ের উৎপাদন ও রপ্তানি বৃদ্ধির জন্য নানাবিধ পদক্ষেপ গ্রহণ করে। এর ফলে ২০২১ সালে দেশে রেকর্ড পরিমাণ ৯৬.৫১ মিলিয়ন কেজি চা উৎপাদিত হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী তার বাণীতে বলেন, চা রপ্তানির অতীত ঐতিহ্যকে ফিরিয়ে আনতে বর্তমান সরকার রপ্তানি বৃদ্ধি করার জন্য বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। তিনি বলেন, চা উৎপাদন বৃদ্ধির জন্য সরকার বৃহদায়তন বাগানের পাশাপাশি সমতলে ক্ষুদ্রায়তন চা আবাদে উৎসাহ দিয়ে যাচ্ছে। গত দুই দশকে দেশের উত্তরাঞ্চলে সমতলে চা আবাদে বিপ্লব ঘটেছে।

 

Facebook Comments Box
(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});

Posted ৭:১৮ অপরাহ্ণ | শনিবার, ০৪ জুন ২০২২

bankbimaarthonity.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

এ বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ ক্যালেন্ডার

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০  
প্রধান সম্পাদক: মোহাম্মাদ মুনীরুজ্জামান
নিউজরুম:

মোবাইল: ০১৭১৫-০৭৬৫৯০, ০১৮৪২-০১২১৫১

ফোন: ০২-৮৩০০৭৭৩-৫, ই-মেইল: bankbima1@gmail.com

সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক কার্যালয়: পিএইচপি টাওয়ার, ১০৭/২, কাকরাইল, ঢাকা-১০০০।