রবিবার ১৪ এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ১ বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বিনিয়োগের আইন মানছে না প্রাইম ইসলামী লাইফ

বিবিএনিউজ.নেট   |   রবিবার, ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯   |   প্রিন্ট   |   464 বার পঠিত

বিনিয়োগের আইন মানছে না প্রাইম ইসলামী লাইফ

বিনিয়োগের ক্ষেত্রে আইন মানছে না পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত প্রাইম ইসলামী লাইফ ইন্স্যুরেন্স। বছরের পর বছর ধরে কোম্পানিটি বিনিয়োগের ক্ষেত্রে এমন অনিয়ম করে আসছে।

এ বিষয়ে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বীমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ (আইডিআরএ) থেকে দফায় দফায় নির্দেশনা দেয়া হলেও তা পরিপালন করেনি জীবন বীমা কোম্পানিটি। গত কয়েক বছরের মতো চলতি বছরেও প্রতিষ্ঠানটি বিনিয়োগের ক্ষেত্রে আইন লঙ্ঘন করেছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, একটি জীবন বীমা কোম্পানিকে তার পলিসিহোল্ডারদের দায় বা লাইফ ফান্ডের ৩০ শতাংশ সরকারি সিকিউরিটিজ বন্ডে বাধ্যতামূলক বিনিয়োগ করতে হয়। কিন্তু বছরের পর বছর তা লঙ্ঘন করে আসছে প্রাইম ইসলামী লাইফ ইন্স্যুরেন্স। বন্ডে বিনিয়োগের ক্ষেত্রে আইডিআরএ থেকে কোম্পানিটিকে আইন মানতে ২০১৬ সাল থেকে দফায় দফায় সময় বেঁধে দেয়া হলেও তা মানা হচ্ছে না।

চলতি বছরের প্রথম প্রান্তিকে (জানুয়ারি-মার্চ) প্রাইম লাইফের সরকারি সিকিউরিটিজে বিনিয়োগ রয়েছে ১৪ কোটি ৮৩ লাখ টাকা। অথচ আইন অনুযায়ী এ খাতে কোম্পানিটির সর্বনিম্ন বিনিয়োগ থাকার কথা ২৩০ কোটি ৫০ লাখ টাকা। কিন্তু সরকারি সিকিউরিটিজ বন্ডে বিনিয়োগ কম রয়েছে ২১৫ কোটি ৬৭ লাখ টাকা।

এ অনিয়মের কারণে গত ২০ আগস্ট আইডিআরএ থেকে প্রাইম ইসলামী লাইফকে একটি চিঠি দেয়া হয়। চিঠিতে বলা হয়, ‘বীমা আইন ১৯৩৮ এর ২৭ ধারা এবং বীমা বিধিমালা ১৯৫৯ এর বিধি ১০-ক বিধান অনুযায়ী লাইফ ফান্ডের ৩০ শতাংশ সরকারি সিকিউরিটিজ খাতে বিনিয়োগের বাধ্যবাধকতা রয়েছে। কিন্তু আপনার কোম্পানি কোনো কিছুর তোয়াক্কা না করে দীর্ঘদিন ধরে এ বিধি লঙ্ঘন করে আসছে।’

প্রাইম ইসলামী লাইফের মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তাকে (সিইও) লেখা ওই চিঠিতে অনিয়মের লিখিত ব্যাখ্যা চাওয়া হয়। সেই সঙ্গে বিনিয়োগের হালনাগাদ কাগজপত্র ও সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাসহ কোম্পানিটির মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তাকে আইডিআরএ’র কার্যালয়ে শুনানিতে ডাকা হয়।

এ বিষয়ে আইডিআরএ সদস্য ড. এম মোশারফ হোসেন বলেন, বিনিয়োগের ক্ষেত্রে প্রাইম ইসলামী লাইফ যে আচরণ করছে তাতে স্পষ্ট যে, কোম্পানিটিতে সুশাসনের অভাব রয়েছে। আমরা বিনিয়োগে অনিয়মের কারণে কোম্পানিটিকে চিঠি দিয়েছি এবং তাদের শুনানিতে ডেকেছি। এখন তারা কী ব্যাখ্যা দেয় আমরা সে অপেক্ষায় রয়েছি।

Facebook Comments Box
(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});

Posted ১১:৫০ পূর্বাহ্ণ | রবিবার, ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯

bankbimaarthonity.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

এ বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ ক্যালেন্ডার

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২
১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭২৮২৯৩০  
প্রধান সম্পাদক: মোহাম্মাদ মুনীরুজ্জামান
নিউজরুম:

মোবাইল: ০১৭১৫-০৭৬৫৯০, ০১৮৪২-০১২১৫১

ফোন: ০২-৮৩০০৭৭৩-৫, ই-মেইল: bankbima1@gmail.com

সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক কার্যালয়: পিএইচপি টাওয়ার, ১০৭/২, কাকরাইল, ঢাকা-১০০০।