• ব্যাংক ও লিজিং প্রতিষ্ঠানের সাথে মেজর মান্নানের মতবিনিময়

    বিবিএনিউজ.নেট | ২৯ আগস্ট ২০১৯ | ১১:৫২ পূর্বাহ্ণ

    ব্যাংক ও লিজিং প্রতিষ্ঠানের সাথে মেজর মান্নানের মতবিনিময়
    apps

    আর্থিক প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশ ইন্ডাষ্ট্রিয়াল ফাইন্যান্স কোম্পানি লিমিটেড (বিআইএফসি)-এর সাবেক চেয়ারম্যান মেজর (অব.) আবদুল মান্নান এমপির সাথে বুধবার স্থানীয় ওয়েস্টিন হোটেলে বিআইএফসিকে ঋণ প্রদানকারী ৩০টি ব্যাংক ও লিজিং প্রতিষ্ঠানের এমডি/ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের এক মতবিবিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।

    সভায় মেজর মান্নান তার প্রতিষ্ঠিত বিআইএফসির বর্তমান অবস্থা এবং এর নেপথ্যের কারণগুলো সম্পর্কে খোলামেলা আলোচনা করেন।

    Progoti-Insurance-AAA.jpg

    আলোচনাকালে উপস্থিত ব্যাংক ও লিজিং কর্মকর্তারা জানান, তারা বিআইএফসির তৎকালীন আর্থিক সচ্ছলতার পাশাপাশি মেজর মান্নানের দীর্ঘদিনের ব্যবসায়িক ও সামাজিক সুনামের কথা বিবেচনা করে প্রতিষ্ঠানটিকে ঋণ প্রদান করেন। শুরু থেকে সব কিছু ঠিকমতো চলার পর বিগত ৩ থেকে ৪ বছর যাবৎ তাঁরা ঋণের কোনো অর্থই ফেরত পাচ্ছেন না বলে প্রদানকারী প্রতিষ্ঠানগুলোর কর্মকর্তারা সভায় ক্ষোভ প্রকাশ করেন।

    জবাবে মেজর মান্নান বলেন, আমাদের এ প্রতিষ্ঠানটি ১৯৯৮ সালে প্রতিষ্ঠা পর থেকেই অত্যন্ত সুনামের সাথে ব্যবসা পরিচালনা করে আসছিল। যার ফলে ২০১৪ সালে ২০% ক্যাশ ডিভিডেন্ড দেয়া সম্ভব হয়েছে। কিন্তু ২০১৪ সালে একটি “ব্যাংক খেকো” দুষ্টচক্র ‘সুকুজা ভেঞ্চার লিমিটেড’ নামের একটি প্রতিষ্ঠানের অনুকূলে পুঁজিবাজার থেকে ৫% সাধারণ শেয়ার ক্রয়ের মাধ্যমে সেই প্রতিষ্ঠানের ২ জন ব্যক্তি বিআইএফসি’র পরিচালক হিসেবে নিযুক্ত হন। এর অল্পদিনের মধ্যেই সদ্য নিয়োগপ্রাপ্ত ২ জন পরিচালকসহ সেই চক্রটি বাকি ৯৫ শতাংশ শেয়ারহোল্ডার ডাইরেক্টরদের বিরুদ্ধে মিথ্যে অভিযোগে এবং অজুহাতে সরিয়ে দিয়ে অতিরিক্ত ৫ জন ব্যক্তিকে ইন্ডিপেন্ডেন্ট ডাইরেক্টর হিসেবে ‘কো-অপ’ করে নেয় এবং এ প্রক্রিয়ায় তারা সমস্ত পরিচালনা পর্ষদটি দখল করে নেয়।


    এরপর থেকেই তারা প্রতিষ্ঠানটিকে কৃত্রিম লোকসানি প্রতিষ্ঠান দেখিয়ে ছলেবলে কৌশলে প্রতিষ্ঠানটিকে কুক্ষিগত করার জন্য বিভিন্ন পন্থা চালিয়ে যাচ্ছে ।

    তিনি বলেন, বিগত বার্ষিক সাধারণ সভা (এজিএম) এ নির্বাচনের মাধ্যমে ৬ জন নতুন পরিচালনা বোর্ড নির্বাচিত হয়েছে, যা বাংলাদেশ ব্যাংকের অনুমোদনের অপেক্ষায় রয়েছে। উপস্থিত আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোর কর্মকর্তাদের আশ্বস্ত করে মেজর মান্নান বলেন, বাংলাদেশ ব্যাংকের অনুমোদনসাপেক্ষ নতুন পরিচালনা বোর্ড দায়িত্ব গ্রহণের পর পরই অগ্রাধিকার ভিত্তিতে বিআইএফসি’র সকল আমানতকারী ব্যক্তি ও ঋণদানকারী প্রতিষ্ঠানগুলোকে অত্যন্ত স্বল্পতম সময়ের মধ্যেই আমানত ও ঋণের সমুদয় অর্থ পরিশোধের কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। এ ব্যাপারে তিনি সকলের সহযোগিতা কামনা করেন।

    Facebook Comments Box

    বাংলাদেশ সময়: ১১:৫২ পূর্বাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, ২৯ আগস্ট ২০১৯

    bankbimaarthonity.com |

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    রডের দাম বাড়ছে

    ১৩ জানুয়ারি ২০১৯

    Archive Calendar

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০
    ১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
    ১৮১৯২০২১২২২৩২৪
    ২৫২৬২৭২৮  
  • ফেসবুকে ব্যাংক বীমা অর্থনীতি