• শিরোনাম

    প্রথিতযশা সঙ্গীত ব্যক্তিত্ব

    শচীন দেব বর্মণের ১১৫তম জন্মদিন আজ

    বিবিএনিউজ.নেট | ০১ অক্টোবর ২০২০ | ২:৩৫ অপরাহ্ণ

    শচীন দেব বর্মণের ১১৫তম জন্মদিন আজ

    শচীন দেব বর্মন ছিলেন বিংশ শতাব্দীতে ভারতীয় বাংলা গানের কিংবদন্তিতূল্য ও জনপ্রিয় সঙ্গীত শিল্পী। “সব ভুলে যাই তাও ভুলি না বাংলা মায়ের কোল” এ শুধু তাঁর গানের পংক্তি নয়, আশ্চর্য বৈভব মন্ডিত তাঁর সঙ্গীত জীবনের চলার ছন্দ । তিনি বাংলা সঙ্গীতের রাজপুত্র – হওয়ার কথা ত্রিপুরার রাজা, হয়ে গেলেন আধুনিক বাংলা গানের মুকুটহীন রাজা।শচীন দেববর্মণের বাবার নাম নবদ্বীপচন্দ্র দেববর্মণ, তিনি ছিলেন তৎকালীন ত্রিপুরা রাজ্যের মহারাজা বীরচন্দ্র মানিক্য বাহাদুরের সৎভাই। সংগীতজ্ঞ হিসেবেও তিনি পরিচিত ছিলেন। মা নিরুপমা দেবী মণিপুরি রাজবংশের মেয়ে। শচীন দেব বর্মনের জন্ম বর্তমান বাংলাদেশের কুমিল্লা জেলায়, ত্রিপুরার চন্দ্রবংশীয় মানিক্য রাজপরিবারের সন্তান। ১৯২০ সনে কুমিল্লা জেলা স্কুল থেকে মেট্রিক ও ১৯২৪ সনে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজ থেকে বি,এ পাস করেন। প্রায়শ তাঁকে “এস ডি বর্মন” হিসাবেই উল্লেখ করা হয়। কেবল সঙ্গীত শিল্পী হিসাবে নয়, গীতিকার হিসাবেও তিনি সার্থক।

    ১৯৩৭ সালে তিনি মীরা ধরকে বিয়ে করেন। মীরা ধর ছিলেন বাংলা গানের অন্যতম সার্থক গীতিকার। গানের ক্ষেত্রে শচীন ও মীরা হয়ে উঠেছিলেন সফল জুটি।শচীন দেব বর্মন আধুনিক বাংলা গানের গায়ন শৈলীতেই এক নতুন মাত্রা যোগ করেছিলেন। শুধুমাত্রে ঈষৎ আনুনাসিক ও দরাজ কন্ঠস্বরের জন্যই নয়, বাংলার মাটি ও মানুষের সঙ্গে তাঁর নিবিড় আত্মীয়তার ফলে বাংলার লোক সুর আর মাঝিমাল্লাদের সঙ্গে মিশে তাদের সুর তুলে এনেছিলেন আর আশ্চর্য দক্ষতায় শাস্ত্রীয় সুরের সঙ্গে মাটির সুরের মিশ্রণ ঘটিয়ে বাংলা গানকে দান করেছিলেন অপার ঐশ্বর্য ।

    Progoti-Insurance-AAA.jpg

    তিনি ১৯৬৯ সালে ভারত সরকার থেকে পদ্মশ্রী খেতাব পান।

    Facebook Comments


    বাংলাদেশ সময়: ২:৩৫ অপরাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, ০১ অক্টোবর ২০২০

    bankbimaarthonity.com |

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩১৪১৫১৬
    ১৭১৮১৯২০২১২২২৩
    ২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
    ৩১  
  • ফেসবুকে ব্যাংক বীমা অর্থনীতি