• সিআইপি অমল পোদ্দারের দুই প্রতিষ্ঠানে ভ্যাট ফাঁকি

    | ০৯ জানুয়ারি ২০১৯ | ১১:৪৭ পূর্বাহ্ণ

    সিআইপি অমল পোদ্দারের দুই প্রতিষ্ঠানে ভ্যাট ফাঁকি
    apps

    দেশের তৈরি পোশাক খাতের মেট্রো নিটিং অ্যান্ড ডায়িং মিলস লিমিটেড ও বীকন নিটওয়্যার লিমিটেডের বিরুদ্ধে ভ্যাট ফাঁকি দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। দুটি প্রতিষ্ঠানের ব্যবস্থাপনা পরিচালক অমল পোদ্দার। তিনি পাঁচবারের সিআইপি। জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) দুটি প্রতিষ্ঠানের ফাঁকি উদ্ঘাটন করেছে।
    দুটি প্রতিষ্ঠানকে চূড়ান্ত দাবিনামা সংবলিত কারণ দর্শানোর নোটিস জারি করা হয়েছে। এর মধ্যে মেট্রো নিটিং অ্যান্ড ডায়িং মিলস লিমিটেড বন্ডেড প্রতিষ্ঠান। এ প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে বন্ড সুবিধার অপব্যবহারের অভিযোগ রয়েছে। এনবিআর সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

    এ বিষয়ে দুটি প্রতিষ্ঠানের ব্যবস্থাপনা পরিচালক অমল পোদ্দার শেয়ার বিজকে বলেন, ‘ভ্যাট ফাঁকির বিষয় নিয়ে আমার ডিপার্টমেন্ট কাজ করছে। ফাঁকি নিয়ে আমি কিছু বলতে চাই না। তবে আমার কোনো প্রতিষ্ঠান ফাঁকি দেয়নি।’

    Progoti-Insurance-AAA.jpg

    এনবিআর সূত্র জানায়, ফতুল্লা নারায়ণগঞ্জের মেট্রো নিটিং অ্যান্ড ডায়িং মিলস লিমিটেড ও বীকন নিটওয়্যার লিমিটেড শতভাগ রফতানিমুখী প্রতিষ্ঠান। দুটি প্রতিষ্ঠান ভ্যাট ফাঁকি দিচ্ছে কি না, তা খতিয়ে দেখার সিদ্ধান্ত নেয় এনবিআর। প্রতিষ্ঠান দুটি এনবিআরের আওতাধীন কাস্টমস, এক্সাইজ ও ভ্যাট কমিশনারেট, ঢাকা (দক্ষিণ) ভ্যাট নিবন্ধিত প্রতিষ্ঠান। এরই পরিপ্রেক্ষিতে ভ্যাট দক্ষিণ দুটি প্রতিষ্ঠানের ২০১২-১৩ থেকে ২০১৬-১৭ অর্থবছর পর্যন্ত পাঁচ বছরের বার্ষিক নিরীক্ষা প্রতিবেদন (সিএ রিপোর্ট) ও অন্যান্য কাগজপত্র দাখিল করতে বলা হয়। কাগজপত্র ও বার্ষিক নিরীক্ষা প্রতিবেদন দাখিল করলে তা যাচাই করে ভ্যাট ফাঁকি উদ্ঘাটন করে সম্প্রতি পৃথক প্রতিবেদন দেওয়া হয়।

    মেট্রো নিটিং অ্যান্ড ডায়িং মিলস লিমিটেডের ভ্যাট ফাঁকির প্রতিবেদনে বলা হয়, এনবিআরের আদেশ অনুযায়ী শতভাগ রফতানিকারক প্রতিষ্ঠানের ক্ষেত্রে জোগানদার, সিকিউরিটি সার্ভিস, পরিবহন ঠিকাদার সেবার ক্ষেত্রে শতভাগ ভ্যাট অব্যাহতি রয়েছে। রফতানিকারক প্রতিষ্ঠান হিসেবে মেট্রো নিটিং নিয়মিত ভ্যাট প্রদান করে আসছে দাবি করে। কিন্তু প্রতিষ্ঠানটির বার্ষিক নিরীক্ষা প্রতিবেদন যাচাই করে দেখা যায়, প্রতিষ্ঠানের বিভিন্ন কেনাকাটা ও ব্যয়ের ক্ষেত্রে বিপুল পরিমাণ ভ্যাট পরিশোধ না করে ফাঁকি দিয়েছে। এর মধ্যে ২০১২-১৩ অর্থবছর অডিট ফি, লিগ্যাল ফি, ফুয়েল, অয়েল ও লুব্রিকেন্টস ব্যয়, ছাপাখানা (নিউজ পেপারসহ অন্যান্য প্রকাশনা), ফার্নিচার, অফিসের বিভিন্ন জিনিস ক্রয় ও যানবাহনের ব্যয়সহ প্রায় ১০টি খাতে প্রায় আড়াই লাখ টাকার ভ্যাট পরিশোধ না করে ফাঁকি দিয়েছে। একইভাবে ২০১৩-১৪ অর্থবছর প্রায় আট লাখ টাকা, ২০১৪-১৫ অর্থবছর প্রায় পৌনে দুই লাখ টাকা ও ২০১৫-১৬ অর্থবছর প্রায় সাড়ে তিন লাখ টাকাসহ পাঁচ বছরে সুদসহ প্রায় ৪৬ লাখ টাকার ভ্যাট ফাঁকি দিয়েছে। এ ভ্যাট পরিশোধে সম্প্রতি দাবিনামা সংবলিত কারণ দর্শানোর নোটিস জারি করা হয়। পরে প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে শুনানিতে অংশ নিয়ে ফার্নিচার খাতে ভ্যাট পরিশোধ ছাড়া অন্যান্য খাতে ভ্যাট পরিশোধের প্রমাণ দাখিল করতে পারেনি। ফার্নিচার খাতে প্রায় ২৪ হাজার টাকার পরিশোধিত ভ্যাট বাদ দিয়ে বাকি ভ্যাট পরিশোধে চূড়ান্ত দাবিনামা জারি করা হয়।


    বীকন নিটওয়্যার লিমিটেডের ভ্যাট ফাঁকির প্রতিবেদনে বলা হয়, এনবিআরের আদেশ অনুযায়ী শতভাগ রফতানিকারক প্রতিষ্ঠানের ক্ষেত্রে জোগানদার, সিকিউরিটি সার্ভিস, পরিবহন ঠিকাদার সেবার ক্ষেত্রে শতভাগ ভ্যাট অব্যাহতি রয়েছে। রফতানিকারক প্রতিষ্ঠান হিসেবে বীকন নিটওয়্যার নিয়মিত ভ্যাট প্রদান করে আসছে দাবি করে। কিন্তু প্রতিষ্ঠানটির বার্ষিক নিরীক্ষা প্রতিবেদন যাচাই করে দেখা যায়, প্রতিষ্ঠানের বিভিন্ন কেনাকাটা ও ব্যয়ের ক্ষেত্রে বিপুল পরিমাণ ভ্যাট পরিশোধ না করে ফাঁকি দিয়েছে। এর মধ্যে ২০১৪-১৫ অর্থবছর অডিট ফি, লিগ্যাল ফি, ফুয়েল, অয়েল ও লুব্রিকেন্টস ব্যয়, ছাপাখানা (নিউজ পেপারসহ অন্যান্য প্রকাশনা), ফার্নিচার, অফিসের বিভিন্ন জিনিস ক্রয় ও যানবাহনের ব্যয়সহ আটটি খাতে প্রায় ১৮ লাখ টাকার ভ্যাট পরিশোধ না করে ফাঁকি দিয়েছে। একইভাবে ২০১৫-১৬ অর্থবছর প্রায় সাড়ে সাত লাখ টাকা, ২০১৬-১৭ অর্থবছর প্রায় দেড় লাখ টাকাসহ পাঁচ বছরে সুদসহ প্রায় ৩৭ লাখ টাকার ভ্যাট ফাঁকি দিয়েছে। এ ভ্যাট পরিশোধে সম্প্রতি দাবিনামা সংবলিত কারণ দর্শানোর নোটিস জারি করা হয়। প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে শুনানিতে অংশ নিলেও কোনো প্রমাণ দাখিল করতে পারেনি। পরে প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে ১২ লাখ ৬৫ হাজার টাকা সরকারি কোষাগারে জমা দেওয়া হয়। ফাঁকির বাকি ২৪ লাখ টাকা কিস্তিতে পরিশোধের আবেদন জানানো হয়। কিন্তু প্রতিষ্ঠানকে সুযোগ না দিয়ে ১৫ দিনের মধ্যে ভ্যাট পরিশোধ করতে চূড়ান্ত দাবিনামা জারি করা হয়।

    ভ্যাট দক্ষিণ কমিশনারেটের একজন কর্মকর্তা বলেন, দুটি প্রতিষ্ঠান শতভাগ রফতানিমুখী হলে দীর্ঘদিন ধরে ভ্যাট ফাঁকি দিয়ে আসছে। আরও ভ্যাট ফাঁকি দিয়েছে কি না, তা আমরা খতিয়ে দেখছি।
    ২০০০ সাল থেকে ব্যবসা শুরু করে মেট্রো নিটিং অ্যান্ড ডায়িং মিলস লিমিটেড। বর্তমানে এর সহযোগী প্রতিষ্ঠান হিসেবে রয়েছে মার্চার ডিজাইন টেক্স লিমিটেড, স্ক্যানডেক্স টেক্সটাইল ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড, পানাম নিটটেক্স লিমিটেড, কেবি ট্রেডার্স লিমিটেড, এএএ টেক্সটাইল মিলস লিমিটেড ও পানাম এগ্রোভেট লিমিটেড। প্রতিষ্ঠানগুলো গার্মেন্টস পণ্য উৎপাদন ও জার্মানি, যুক্তরাষ্ট্র, সুইডেন, জাপান, তাইওয়ান, তুর্কিসহ বিভিন্ন দেশে রফতানি করে। রফতানি খাতে অবদানের জন্য অমল পোদ্দার পঞ্চমবার আর তার স্ত্রী প্রীতি পোদ্দার বীকন নিটওয়্যারের চেয়ারম্যান টানা চতুর্থবার মতো সিআইপি হন।

    Facebook Comments Box

    বাংলাদেশ সময়: ১১:৪৭ পূর্বাহ্ণ | বুধবার, ০৯ জানুয়ারি ২০১৯

    bankbimaarthonity.com |

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    সফলতার আরেক নাম “জ্যাক মা”

    ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

    Archive Calendar

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩১৪১৫
    ১৬১৭১৮১৯২০২১২২
    ২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
    ৩০৩১  
  • ফেসবুকে ব্যাংক বীমা অর্থনীতি