• ইপিবি’র হালনাগাদ পরিসংখ্যানে তথ্য

    সেবা খাতে ছয় মাসে রফতানি আয় ২৮৭ কোটি ডলার

    নিজস্ব প্রতিবেদক | ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ | ৫:৫৩ অপরাহ্ণ

    সেবা খাতে ছয় মাসে রফতানি আয় ২৮৭ কোটি ডলার
    apps

    ইতিবাচক ধারায় রয়েছে দেশের সেবা খাতে রফতানি আয়। চলতি অর্থবছরের প্রথম ছয় মাসে (জুলাই-ডিসেম্বর) দেশের সেবা খাতে রফতানি আয় এসেছে ২৮৭ কোটি ১৩ লাখ ডলার; যা আগের অর্থবছরের একই সময়ের চেয়ে ৫০ দশমিক ৪৮ শতাংশ বেশি।

    বুধবার রফতানি উন্নয়ন ব্যুরো (ইপিবি) প্রকাশিত হালনাগাদ পরিসংখ্যানে এ তথ্য উঠে এসেছে।

    Progoti-Insurance-AAA.jpg

    ইপিবি জানিয়েছে, বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে সংগ্রহকৃত পরিসংখ্যান থেকে মোট তিনটি ভাগে সেবা খাতে রফতানি আয়ের সংকলন করা হয়েছে। এ তিনটি ভাগ হলো— গুডস প্রকিউরড ইন পোর্টস বাই ক্যারিয়ারস, গুডস সোল্ড আন্ডার মার্চেন্টিং ও সার্ভিসেস।

    ইপিবির তথ্য বলছে, অর্থবছরের প্রথম ছয় মাসে এ তিনটি ভাগ থেকে মোট রফতানি আয় হয়েছে ২৮৭ কোটি ১৩ লাখ ডলার। বাংলাদেশি মুদ্রায় (প্রতি ডলার ৮৪ টাকা হিসাবে) যার পরিমাণ দাঁড়ায় প্রায় আড়াই হাজার কোটি টাকা। ২০১৬-১৭ অর্থবছরের একই সময়ে আয়ের পরিমাণ ছিল ১৯০ কোটি ৮০ লাখ ৪০ হাজার ডলার। এ হিসেবে সেবা খাতে রফতানি আয়ে প্রবৃদ্ধি হয়েছে ৫০ দশমিক ৪৮ শতাংশ। আর ছয় মাসে লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে সেবায় রফতানি বেড়েছে ১৪ দশমিক ৮৫ শতাংশ। জুলাই-ডিসেম্বর সময়ের বিভিন্ন ধরনের সেবা রফতানি খাতে লক্ষ্যমাত্রা ছিল ২৫০ কোটি ডলার ।


    রফতানির এ আয়ের মধ্যে সরাসরি সেবা খাত থেকে এসেছে ২৮০ কোটি ৮৮ লাখ। বাকিটা দেশের বন্দরগুলোতে পণ্যবাহী জাহাজগুলোর কেনা পণ্য ও সেবা এবং মার্চেন্টিংয়ের অধীনে পণ্য বিক্রির আয়।

    অন্য উপখাতগুলোর মধ্যে ‘অন্যান্য ব্যবসায় সেবা’ থেকে ৪৮ কোটি ২৪ লাখ ডলার, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি থেকে ২৯ কোটি ৪৮ লাখ ৭০ হাজার ডলার, বিভিন্ন ধরনের পরিবহন সেবা থেকে ৩৫ কোটি ২৪ লাখ ডলার, বীমা ছাড়া আর্থিক সেবা খাত থেকে ৫ কোটি ৭০ লাখ ৯ হাজার ডলার এবং ভ্রমণ সেবা উপখাত থেকে ১৭ কোটি ৭৬ লাখ ডলার রফতানি আয় হয়েছে।

    বাংলাদেশ থেকে রফতানি হওয়া সেবাপণ্যের মধ্যে রয়েছে ম্যানুফ্যাকচারিং সার্ভিসেস অন ফিজিকাল ইনপুটস, মেইনটেন্যান্স অ্যান্ড রিপেয়ার, ট্রান্সপোর্টেশন, কনস্ট্রাকশন সার্ভিসেস, ইনস্যুরেন্স সার্ভিসেস, ফিন্যান্সিয়াল সার্ভিসেস, চার্জেস ফর দ্য ইউজ অব ইন্টেলেকচুয়াল প্রপার্টি, টেলিকমিউনিকেশন সার্ভিসেস, আদার বিজনেস সার্ভিসেস, পার্সোনাল-কালচার-রিক্রিয়েশনাল ও গভর্নমেন্ট গুডস অ্যান্ড সার্ভিসেস।

    ইপিবির তথ্য অনুযায়ী, চলতি অর্থবছরের প্রথম সাত মাসে (জুলাই-জানুয়ারি) সার্বিকভাবে বিশ্ববাজারে পণ্য রফতানি করে বাংলাদেশের আয় করেছে ২ হাজার ৪১৭ কোটি ৯৫ লাখ ডলার। গত অর্থবছরের একই সময়ে রফতানি আয়ের পরিমাণ ছিল ২ হাজার ১৪২ কোটি ৪৯ লাখ ডলার। এ হিসাবে আয় বেড়েছে ১৩ দশমিক ৩৯ শতাংশ।

    চলতি অর্থবছরে প্রথম ছয় মাসে পণ্য ও সেবা খাত মিলে মোট রফতানি আয় হয়েছে ২ হাজার ৭০৫ কোটি ৮ লাখ ডলার; যা নির্ধারিত লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ৮ দশমিক ৬১ শতাংশ বেশি। একই সঙ্গে গত অর্থবছরের একই সময়ের তুলনায় পণ্য ও সেবা খাতে রফতানি বেড়েছে ১৬ দশমিক ৪৩ শতাংশ। ২০১৭-১৮ বছরে একই সময় রফতানি আয় হয়েছিল ২ হাজার ৩২৩ কোটি ২৯ লাখ ডলার।

    ২০১৭-১৮ অর্থবছরে সেবা খাত থেকে মোট রফতানি হয়েছে ৪২৬ কোটি ডলার। ওই সময়ে পণ্য রফতানি করে দেশের আয় হয় ৩ হাজার ৬৬৬ কোটি ৮১ লাখ ৭ হাজার ডলার। সে হিসাবে গত অর্থবছরের পণ্য ও সেবা খাত মিলে মোট রফতানি আয় হয় ৪ হাজার ১৭৮ কোটি ৭ লাখ হাজার ডলার।

    Facebook Comments Box

    বাংলাদেশ সময়: ৫:৫৩ অপরাহ্ণ | বুধবার, ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

    bankbimaarthonity.com |

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    রডের দাম বাড়ছে

    ১৩ জানুয়ারি ২০১৯

    Archive Calendar

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০
    ১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
    ১৮১৯২০২১২২২৩২৪
    ২৫২৬২৭২৮২৯৩০  
  • ফেসবুকে ব্যাংক বীমা অর্থনীতি