মঙ্গলবার ২৮ মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ১৪ জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

১৫ বছরেও চাকরি স্থায়ী না করায় ন্যাশনাল লাইফ ঘেরাও

বিবিএনিউজ.নেট   |   বৃহস্পতিবার, ০৫ মার্চ ২০২০   |   প্রিন্ট   |   534 বার পঠিত

১৫ বছরেও চাকরি স্থায়ী না করায় ন্যাশনাল লাইফ ঘেরাও

চাকরি স্থায়ী না করায় পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ন্যাশনাল লাইফ ইন্সুরেন্সের প্রধান কার্যালয় ঘেরাও করেছেন সারা দেশ থেকে আসা প্রায় দুই শতাধিক কর্মী। আজ বৃহস্পতিবার সকালে রাজধানীর কারওয়ানবাজারে অবস্থিত কোম্পানিটির প্রধান কার্যালয় ঘেরাও করেন তারা।

এই কর্মীরা বলছেন, ১০-১৫ বছর ধরে চাকরি করার পরও কোম্পানি কর্তৃপক্ষ তা স্থায়ী করছে না। নানা অজুহাতে চাকরি স্থায়ী করা বন্ধ রেখেছে। এখন চাকরি চলে যাওয়ার ভয় দেখানো হচ্ছে তাদের। তবে কোম্পানিটির দায়িত্বশীল কর্মকর্তারা বলেছেন, কর্মকর্তাদের চাকরি স্থায়ী করা হবে। এ বিষয়ে কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন। তাদের চাকরি স্থায়ী করা সংক্রান্ত চিঠি ইস্যুর অপেক্ষায় রয়েছে। বিষয়টি আন্দোলনরত কর্মীরা জানেন না। কেউ হয়তো তাদের ভুল বুঝিয়ে আন্দোলনে নামিয়েছে।

চাকরি স্থায়ী করার দাবির আন্দোলনে নেতৃত্ব দেয়া আনোয়ার হোসেন বলেন, আমি মাস্টার্স পাস করে চাকরিতে ঢুকেছি। আমার চাকরির বয়স সাড়ে ৮ বছর হয়ে গেছে। আমাকে এখন বেতন দেয়া হয় ৭ হাজার ৮৪৯ টাকা। একদিকে চাকরি স্থায়ী করা হচ্ছে না, অন্যদিকে নামমাত্র বেতন। এতে আমরা মানবেতর জীবন-যাপন করছি। তাই চাকরি স্থায়ী করার দাবিতে আমরা দুই শতাধিক কর্মকর্তা ন্যাশনাল লাইফ কার্যালয়ের সামনে অবস্থান নিয়েছি।

তিনি বলেন, এর আগেও আমাদের চাকরি স্থায়ী করার আশ্বাস দেয়া হয়। কিন্তু চাকরি স্থায়ী করা হচ্ছে না। গভ বছরের ৫ ডিসেম্বর আমরা প্রধান কার্যালয়ে এসেছিলাম। সেসময় জানুয়ারির মধ্যে আমাদের চাকরি স্থায়ী করার আশ্বাস দেয়া হয়েছিল। চাকরি স্থায়ী করা হয়নি, এখন তারা ভয় দেখাচ্ছে চাকরি যাওয়ার।

আন্দোলনে অংশ নেয়া মিজানুর রহমান সোহাগ নামের আরেকজন বলেন, এইচএসসি পাস করে আমি রেকর্ড কিপার হিসেবে ২০০৯ সালে ন্যাশনাল লাইফে যোগ দিই। সেসময় আমার বেতন ছিল ৩ হাজার টাকা। গত ১১ বছরে বেতন বেড়েছে মাত্র ১ হাজার ৫০০ টাকার মতো। পরিবার নিয়ে আমরা খুব কষ্টে দিন কাটাচ্ছি। কোম্পানি বারবার আশ্বাস দিয়েও আমাদের চাকরি স্থায়ী করছে না। এ কারণে আন্দোলনে নেমেছি।

নজরুল ইসলাম নামের আরেকজন বলেন, ১৫-২০ বছর ধরে ক্যাজুয়াল কর্মকর্তা হিসেবে চাকরি করা হলেও আমাদের চাকরি স্থায়ী করা হচ্ছে না। বেতনও দেয়া হচ্ছে খুবই সামান্য। শ্রমিক নীতিমালার কোনোকিছুই মানা হচ্ছে না। দফায় দফায় চাকরি স্থায়ী করার আশ্বাস দেয়া হলেও তা বাস্তবায়ন করা হচ্ছে না। এ কারণে আমরা আন্দোলন নামতে বাধ্য হয়েছি।

এ বিষয়ে যোগাযোগ করা হলে ন্যাশনাল লাইফ ইন্স্যুরেন্সের মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) জামাল এ নাসের বলেন, সবার চাকরি স্থায়ী করা হবে। তাদের চাকরি স্থায়ী করা সংক্রান্ত চিঠি ইস্যু হয়েছে। বিষয়টি তারা জানে না। এ কারণে হয়তো আন্দোলন করছে।

ডিসেম্বরে চাকরি স্থায়ী করার আশ্বাস দেয়ার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ডিসেম্বরে ব্যবসার হিসাব ক্লোজিংয়ের ব্যস্ততা ছিল। এ ছাড়া বীমা মেলা ও দিবস নিয়েও অনেক ঝামেলা গেছে। সবার চাকরি স্থায়ী করার বিষয়ে আমরা খুবই ইতিবাচক। শিগগির তাদের চাকরি স্থায়ী করা হবে।

Facebook Comments Box
(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});

Posted ১২:৫৫ অপরাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, ০৫ মার্চ ২০২০

bankbimaarthonity.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

এ বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ ক্যালেন্ডার

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০৩১
প্রধান সম্পাদক: মোহাম্মাদ মুনীরুজ্জামান
নিউজরুম:

মোবাইল: ০১৭১৫-০৭৬৫৯০, ০১৮৪২-০১২১৫১

ফোন: ০২-৮৩০০৭৭৩-৫, ই-মেইল: bankbima1@gmail.com

সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক কার্যালয়: পিএইচপি টাওয়ার, ১০৭/২, কাকরাইল, ঢাকা-১০০০।