• শিরোনাম

    তথ্যমন্ত্রী হলেন ড. হাছান মাহমুদ

    | ০৭ জানুয়ারি ২০১৯ | ২:৪৮ অপরাহ্ণ

    তথ্যমন্ত্রী হলেন ড. হাছান মাহমুদ

    নতুন মন্ত্রিসভায় ডাক পেয়েছেন রাঙ্গুনিয়া থেকে নির্বাচিত সংসদ সদস্য ড. হাছান মাহমুদ। রোববার বিকালে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে টেলিফোনে ডাক পেয়েছেন তিনি। তার ব্যক্তিগত সহকারী এমরুল করিম রাশেদ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। হাছান মাহমুদ তথ্য মন্ত্রাণালয়ের পূর্ণাঙ্গ মন্ত্রিত্ব পেয়েছেন বলে জানিয়েছেন তার অপর সহকারী কাইছারুল আলম। এক প্রতিক্রিয়ায় ড. হাছান মাহমুদ রাঙ্গুনিয়ার সর্বস্তরের জনগণের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে আধুনিক ও উন্নত দেশ গড়ার ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ ভূমিকা রাখার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন। নতুন মন্ত্রিসভার সদস্যদের সঙ্গে তিনি সোমবার শপথ গ্রহণ করবেন বলে জানা যায়।

    এদিকে টানা তৃতীয়বারের মতো জয় পাওয়া চট্টগ্রাম-৭ (রাঙ্গুনিয়া, বোয়ালখালী আংশিক) আসনের আওয়ামী লীগের বর্তমান সংসদ সদস্য ও দলের কেন্দ্রীয় প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক হাছান মাহমুদের মন্ত্রিত্ব পাওয়ার খবরে রাঙ্গুনিয়ার সর্বত্র চলছে উৎসব। ফেইসবুকসহ বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অভিনন্দন জানিয়ে দেওয়া হচ্ছে বিভিন্ন খুদে বার্তা। সর্বত্র চলছে মিষ্টি বিতরণ।

    উল্লেখ্য, একাদশ সংসদ নির্বাচনে রাঙ্গুনিয়া আসন থেকে জয়ী হয়েছেন হাছান মাহমুদ। এর আগে ২০০৮ সালে ২৯ ডিসেম্বরের ৯ম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তিনি বিএনপির হেভিওয়েট প্রার্থী সালাহউদ্দিন কাদের চৌধুরীকে প্রায় ৩৫ হাজার ভোটের ব্যবধানে পরাজিত করে প্রথম সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন। সেই সময় তিনি ভোট পেয়েছিলেন ১ লাখ ৭ হাজার ২২ ভোট। এবার ভোট পেলেন ২ লাখ ১৭ হাজার ১৫৫ ভোট। যা দ্বিগুণেরও বেশি। ২০১৫ সালে যুদ্ধাপরাধের দায়ে ফাঁসি কার্যকর হয়েছিল সালাহউদ্দিন কাদের চৌধুরীর।

    হাছান মাহমুদ তৎকালীন বিরোধী দলীয় নেত্রী শেখ হাসিনার বিশেষ সহকারী ছিলেন। ১/১১-তে দলের দুঃসময়ে রেখেছেন বিশেষ ভূমিকা। প্রথমবার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়ে মন্ত্রিপরিষদে স্থান করে নিয়ে চমক সৃষ্টি করেন তিনি। ওই সংসদে তিনি প্রথম ছয় মাস পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী এবং পরে পরিবেশ ও বন মন্ত্রণালয়ের পূর্ণ মন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পান। সাড়ে চার বছর সফলতার সাথে তিনি এই দায়িত্ব পালন করেন। ২০১৪ সালে দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে হাছান মাহমুদ বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছিলেন। তখন তিনি সংসদ সদস্য নির্বাচিত হলেও মন্ত্রী হিসেবে সুযোগ পাননি। তবে বন ও পরিবেশ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন তিনি।

    এর আগে ৩০ ডিসেম্বর রাতে নির্বাচনে জয়ী হওয়ার পর প্রতিক্রিয়ায় হাছান মাহমুদ সাংবাদিকদের বলেন, অবহেলিত রাঙ্গুনিয়া গেল ১০ বছরে বদলে গেছে। দুই মেয়াদে সাড়ে ৩ হাজার কোটি টাকার উন্নয়ন কাজ হয়েছে। উন্নয়নের ছোঁয়া প্রতিটি পাড়ায় পৌঁছে গেছে। এবার লক্ষ্য থাকবে শুধু উন্নয়ন নয়, উন্নয়ন কর্মকা-কে টেকসই করা। এলাকার রাস্তাঘাট, বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে সৌন্দর্যবর্ধনের কাজ শুরু হবে। রাঙ্গুনিয়াকে ভিক্ষুকমুক্ত করা হবে। পরিকল্পিত হাউজিং, চন্দ্রঘোনা পর্যন্ত রেললাইন সম্প্রসারণ, মিনি স্টেডিয়াম নির্মাণ, আইটি পার্ক স্থাপন, বেকার যুবকদের কারিগরি শিক্ষায় শিক্ষিত করতে একটি কারিগরি কলেজ নির্মাণের উদ্যোগ নেওয়া হবে। রাঙ্গুনিয়াকে একটি আধুনিক শহর হিসেবে গড়ে তুলতে যা যা করা দরকার, সব কাজ করা হবে।

    Comments

    comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    নভেম্বর ২০১৯
    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
    « অক্টোবর    
     
    ১০১১১২১৩১৪১৫
    ১৬১৭১৮১৯২০২১২২
    ২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
    ৩০  
  • ফেসবুকে ব্যাংক বীমা অর্থনীতি