• পুনর্মূল্যায়নের পর ৬ কোটি টাকার সম্পদ কমেছে ইস্টার্ন ব্যাংকের

    | ০৫ জানুয়ারি ২০১৯ | ৬:৫৯ অপরাহ্ণ

    পুনর্মূল্যায়নের পর ৬ কোটি টাকার সম্পদ কমেছে ইস্টার্ন ব্যাংকের
    apps

    পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ইস্টার্ন ব্যাংক লিমিটেডের (ইবিএল) সম্পদমূল্য প্রায় ৬ কোটি টাকা কমেছে। পুনর্মূল্যায়নের কারণে ব্যাংকটির সম্পদের আগে যে মূল্য ছিল, বর্তমানে তা কমেছে। এর ফলে সম্পদের মূল্য যে পরিমাণ কমেছে, ইবিএলকে তা সমন্বয় করতে হবে। সম্পদ পুনর্মূল্যায়ন প্রতিষ্ঠান জরিপ ও পরিদর্শন কোম্পানি লিমিটেড ইবিএলের সম্পদ পুনর্মূল্যায়ন করেছে। সম্প্রতি ব্যাংকটির পর্ষদ সম্পদ পুনর্মূল্যায়নকারী প্রতিষ্ঠানের প্রতিবেদন অনুমোদন করেছে। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

    জানা যায়, পুনর্মূল্যায়িত সম্পদের সবই জমি। গত বছরের ২০ ডিসেম্বর পর্যন্ত এসব জমির বুক ভ্যালু ছিল ৪০৪ কোটি ৪৭ লাখ টাকা। পুনর্মূল্যায়নের পরে এগুলোর মূল্য ৫ কোটি ৮৮ লাখ টাকা কমে দাঁড়িয়েছে ৩৯৮ কোটি ৫৯ লাখ টাকায়। এর মধ্যে চট্টগ্রামের আগ্রাবাদে ১৩ দশমিক ৪৩ কাঠা জমির মূল্য পুনর্মূল্যায়নের পরে ২ কোটি ৬৮ লাখ টাকা কমে ৪৪ কোটি ৩০ লাখ টাকায় দাঁড়িয়েছে। রাজধানীর গুলশান এভিনিউর ২৬ দশমিক ২৪ কাঠা জমির মূল্য পুনর্মূল্যানের আগে ছিল ২০৯ কোটি ৯৯ লাখ টাকা, যা পুনর্মূল্যায়নের পরেও অপরিবর্তিত রয়েছে। বসুন্ধরার ১০০ কাঠা জমির মূল্য পুনর্মূল্যায়নের পরে ১৩ কোটি ৯৮ লাখ টাকা বেড়ে ৮০ কোটি টাকায় দাঁড়িয়েছে। তবে বসুন্ধরায় ৫ কাঠার আরেকটি জমির মূল্য পুনর্মূল্যায়নের পরে আড়াই কোটি টাকা কমে ৭ কোটি ৫০ লাখ টাকা হয়েছে। লালমাটিয়া হাউজিং সোসাইটির পৌনে আট কাঠা জমির মূল্য পুনর্মূল্যায়নের পরে ৩ কোটি ৮৭ লাখ টাকা কমে ১৯ কোটি ৩৭ লাখ টাকায় দাঁড়িয়েছে। গাজীপুরের পূর্বাচলে ৮৫ দশমিক ১৫ কাঠার জমিটির মূল্য পুনর্মূল্যায়নের পরে ৫ কোটি ১০ লাখ টাকা কমে ৫ কোটি ১০ লাখ ৯০ হাজার টাকা হয়েছে। আশুলিয়ার পলাশবাড়ীতে ৩৭৯ দশমিক ৬৯ কাঠা জমির মূল্য পুনর্মূল্যায়নের পরে ৫ কোটি ৬৯ লাখ টাকা কমে ৩২ কোটি ২৭ লাখ টাকায় দাঁড়িয়েছে।

    Progoti-Insurance-AAA.jpg

    উল্লেখ্য, চলতি হিসাব বছরে প্রথম তিন প্রান্তিকে (জানুয়ারি-সেপ্টেম্বর) ব্যাংকটির শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ২ টাকা ৮৮ পয়সা, যা আগের বছর একই সময়ে ছিল ৩ টাকা ৩৪ পয়সা।

    ২০১৭ হিসাব বছরের জন্য ২০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দিয়েছে ব্যাংকটি। বার্ষিক ইপিএস ছিল ৩ টাকা ২৯ পয়সা, আগের হিসাব বছরে যা ছিল ৩ টাকা ৮৬ পয়সা। ২০১৭ সালের ৩১ ডিসেম্বর ব্যাংকটির শেয়ারপ্রতি নিট সম্পদমূল্য (এনএভিপিএস) দাঁড়ায় ২৯ টাকা ৬৪ পয়সায়।


    সর্বশেষ রেটিং অনুযায়ী, ইস্টার্ন ব্যাংক লিমিটেডের ঋণমান দীর্ঘমেয়াদে ‘ডাবল এ প্লাস’ ও স্বল্পমেয়াদে ‘এসটি-টু’। ৩১ ডিসেম্বর সমাপ্ত ২০১৭ হিসাব বছরের নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন ও অন্যান্য তথ্যের ভিত্তিতে এ মূল্যায়ন করেছে ক্রেডিট রেটিং ইনফরমেশন অ্যান্ড সার্ভিসেস লিমিটেড (সিআরআইএসএল)।

    ডিএসইতে গত বৃহস্পতিবার ইবিএলের শেয়ারদর ২ দশমিক ২০ শতাংশ বা ৮০ পয়সা বেড়ে দাঁড়ায় ৩৭ টাকা ১০ পয়সায়।

    বর্তমানে ব্যাংকটির অনুমোদিত মূলধন ১ হাজার ২০০ কোটি ও পরিশোধিত মূলধন ৭৩৮ কোটি টাকা। রিজার্ভ ১ হাজার ৪৪৯ কোটি ৬২ লাখ টাকা। কোম্পানির মোট শেয়ারের মধ্যে উদ্যোক্তা-পরিচালক ৩১ দশমিক ৫৬ শতাংশ, প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারী ৪৩ দশমিক ৬৯, বিদেশী শূন্য দশমিক ৫২ এবং সাধারণ বিনিয়োগকারীর হাতে রয়েছে বাকি ২৪ দশমিক ২৩ শতাংশ শেয়ার।

    সর্বশেষ নিরীক্ষিত ইপিএস ও বাজারদরের ভিত্তিতে শেয়ারটির মূল্য আয় অনুপাত বা পিই রেশিও ১১ দশমিক ২৮। অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদনের ভিত্তিতে যা ৯ দশমিক ৬৬।

    Facebook Comments Box

    বাংলাদেশ সময়: ৬:৫৯ অপরাহ্ণ | শনিবার, ০৫ জানুয়ারি ২০১৯

    bankbimaarthonity.com |

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    Archive Calendar

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০
    ১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
    ১৮১৯২০২১২২২৩২৪
    ২৫২৬২৭২৮২৯৩০  
  • ফেসবুকে ব্যাংক বীমা অর্থনীতি