• বীমা এজেন্টদের প্রশিক্ষণ সংক্রান্ত নীতিমালা প্রণয়ন আইডিআরএ’র

    আব্দুল্লাহ ইবনে মাস্উদ | ৩০ জুলাই ২০১৯ | ১০:৪৮ পূর্বাহ্ণ

    বীমা এজেন্টদের প্রশিক্ষণ সংক্রান্ত নীতিমালা প্রণয়ন আইডিআরএ’র
    apps

    বীমাশিল্পে দক্ষ মানব সম্পদ গড়ার লক্ষ্যে বীমা এজেন্টদের প্রশিক্ষণ সংক্রান্ত নীতিমালা প্রণয়ন করেছে বীমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ (আইডিআরএ)। ২১ জুলাই কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান শফিকুর রহমান পাটোয়ারীর স্বাক্ষরে নীতিমালাটির সার্কুলার (নং-জিএডি-৩/২০১৯) ইস্যু করেছে আইডিআরএ।

    সার্কুলারে উল্লেখ করা হয়েছে, বীমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ কর্তৃক গত ৭ ডিসেম্বর ২০১৪ তারিখে জিএডি সার্কুলার-১২/২০১৪-এর মাধ্যমে বীমা এজেন্টদের প্রশিক্ষণ সংক্রান্ত নির্দেশনা প্রদান করা হয়েছিল। কিন্তু তা যথাযথ অনুসরণ করা হচ্ছে না। তাই বীমা এজেন্টদের প্রশিক্ষণ প্রদানের জন্য পূর্বে বর্ণিত সার্কুলারের পাশাপাশি আইডিআরএ কর্তৃক প্রণীত নীতিমালা যথাযথভাবে অনুসরণের জন্য সকলকে অনুরোধ করা হয়েছে।

    Progoti-Insurance-AAA.jpg

    মোট ১৬টি শর্ত নির্ধারণ করে দেয়া হয়েছে বীমা এজেন্টদের প্রশিক্ষণ সংক্রান্ত নীতিমালায়। এসব বিষয়ের মধ্যে রয়েছে- (১) প্রশিক্ষণটি কমপক্ষে ছয় দিনব্যাপী হতে হবে (তিন দিন শ্রেণিকক্ষে ও তিন দিন মাঠ পর্যায়ে); (২) স্ব-স্ব বীমা কোম্পানির নিজস্ব প্রশিক্সক দ্বারা পরিচালনা করা যাবে না; (৩) প্রশিক্ষককে ন্যূনতম স্নাতক ডিগ্রিধারী হতে হবে এবং বীমা পেশায় পাঁচ বছরের অভিজ্ঞতা থাকতে হবে; (৪) বীমা কোম্পানির সাথে স্বার্থসংশ্লিষ্ট কোন প্রতিষ্ঠান থেকে ওই বীমা কোম্পানির এজন্টদের প্রশিক্ষণ প্রদান করা যাবে না; (৫) প্রশিক্ষণ সম্পন্ন করে প্রশিক্ষণ সার্টিফিকেটসহ প্রয়োজনীয় কাগজপত্রাদি সংযুক্ত করে কর্তৃপক্ষ বরাবর লাইসেন্স ইস্যু (নতুন/নবায়ন) করার জন্য আবেদন করতে হবে; (৬) প্রশিক্ষণ ভেন্যু ও অন্যান্য সুযোগ সুবিধা মানসম্পন্ন হতে হবে; (৭) প্রত্যেক প্রশিক্ষণার্থীর ছবি ও জাতীয় পরিচয়পত্রের কপি সংরক্ষণ করা বাধ্যতামূলক; (৮) প্রশিক্ষনার্থীকে বিভিন্ন পরিকল্পের সুবিধা বোঝাতে সক্ষম করে তুলতে হবে; (৯) আইনগত দিকসমূহের উপর প্রাথমিক ধারনা থাকতে হবে; (১০) প্রশিক্ষণার্থীকে পরিকল্প বিক্রয়ের সংশ্লিষ্ট কাগজপত্র সংরক্ষণ সম্পর্কিত ধারণা প্রদান করতে হবে; (১১) বীমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ কর্তৃক নির্ধারিত মডিউলের ওপর প্রশিক্ষণ প্রদান করতে হবে; (১২) শ্রেণিকক্ষে প্রশিক্ষণের পাশপাশি মাঠপর্যায়ে হাতে-কলমে প্রশিক্ষণ প্রদানকে উৎসাহিত করতে হবে; (১৩) প্রশিক্ষণের যথাযথ মান নিশ্চিত করে প্রশিক্ষণ ফি নির্ধারণ করতে হবে যা ন্যূনতম দুই হাজার টাকা থেকে সর্বোচ্চ তিন হাজার টাকার সীমার মধ্যে রাখতে হবে; (১৪) এজেন্ট লাইসেন্সটি নবায়নের ক্ষেত্রে পুনরায় প্রশিক্ষণার্থীকে প্রশিক্ষণ গ্রহণ করতে হবে সেক্ষেত্রে প্রশিক্ষণটি দুদিনব্যাপী হবে (একদিন শ্রেণিকক্ষে এবং একদিন মাঠপর্যায়ে); (১৫) প্রশিক্ষণবিহীন সনদ প্রদান একটি গুরুতর অপরাধ হিসেবে পরিগণিত হবে। এক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট বীমা কোম্পানি এবং প্রশিক্ষণ প্রতিষ্ঠানকে শাস্তিমূলক ব্যবস্থার আওতায় আনা হবে; এবং (১৬) প্রতি তিন মাস অন্তর নমুনা ছকে প্রশিক্ষণ বিবরণী কর্তৃপক্ষ বরাবর প্রেরণ করতে হবে।

    বীমাখাতের উন্নয়নে নানা উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। কিন্তু বীমা সম্পর্কে সাধারণ মানুষের ধারণা নেতিবাচক। এর সুবিধা সম্পর্কেও জানে না অধিকাংশ মানুষ। এমন অবস্থায় বীমাখাতের উন্নয়নে প্রধান বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে ইমেজ সংকট। এই ইমেজ সংকট দ‚র করার জন্য প্রয়োজন দক্ষ জনশক্তির। বীমা সেক্টরে দক্ষ জনশক্তি তৈরি ও বীমার পেনিট্রেশন বাড়াতেই এই নীতিমালা প্রণয়ন করেছে বীমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ (আইডিআরএ)।


    Facebook Comments Box

    বাংলাদেশ সময়: ১০:৪৮ পূর্বাহ্ণ | মঙ্গলবার, ৩০ জুলাই ২০১৯

    bankbimaarthonity.com |

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    Archive Calendar

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০
    ১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
    ১৮১৯২০২১২২২৩২৪
    ২৫২৬২৭২৮  
  • ফেসবুকে ব্যাংক বীমা অর্থনীতি