• আসছে তৈরি পোশাকের নতুন রপ্তানি আদেশ

    নিজস্ব প্রতিবেদক | ০৪ মে ২০২০ | ১১:১০ অপরাহ্ণ

    আসছে তৈরি পোশাকের নতুন রপ্তানি আদেশ
    apps

    করোনার কারণে বাতিল এবং স্থগিত হওয়া তৈরি পোশাকের রপ্তানি আদেশ ফেরত আসছে। এর বড় অংশই পুনর্বহাল করেছে বিদেশি ব্র্র্যান্ড এবং ক্রেতারা। ইউরোপ আমেরিকা থেকে বাংলাদেশে নতুন রপ্তানি আদেশও আসতে শুরু করেছে। নতুন রপ্তানি আদেশের উল্লেখযোগ্য অংশ আগামী শীত মৌসুমের জন্য। অনেকে বলছেন, নানা কারণে চীন তৈরি পোশাকের বাজার কিছুটা হারাতে পারে। ফলে এটা বাংলাদেশের জন্য বড় একটি সুযোগ তৈরি করবে। পোশাক রপ্তানিকারক একাধিক ব্যবসায়ীর সঙ্গে কথা বলে এসব তথ্য জানা গেছে।
    বাংলাদেশের তৈরি পোশাকের ৮০ শতাংশেরও বেশি রপ্তানি হয়ে থাকে ২৮ দেশের জোট ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ) এবং একক বড় বাজার যুক্তরাষ্ট্রে। এই দুই অঞ্চলে করোনাভাইরাস সংক্রমণের তীব্রতার সময়ে ফেব্রুয়ারির প্রথম দিকে বেশিরভাগ ব্র্যান্ড এবং ক্রেতা একের পর এক রপ্তানি আদেশ বাতিল করে। লম্বা সময় ধরে শোরুম এবং মার্কেট বন্ধ থাকার পরিপ্রেক্ষিতে এই সিদ্ধান্ত নেন তারা। আমদানিকারক এবং রপ্তানিকারকের মধ্যকার চুক্তিতে উল্লেখিত দরের চেয়ে কম মূল্য এবং বিলম্বে মূল্য পরিশোধের ঘটনাও ঘটে। পোশাক খাতের দুই সংগঠন বিজিএমইএ এবং বিকেএমইএর পরিসংখ্যান বলছে, বাতিল এবং স্থগিত পোশাকের মূল্য অন্তত ৪০০ কোটি ডলারের মতো। এখনও রপ্তানি আদেশ বাতিলের ঘটনা ঘটছে, তবে তা খুবই কম।
    জার্মানির বৈদেশিক বাণিজ্য সহায়ক বিষয়কমন্ত্রী ড. মুলার আশ্বস্ত করেছেন, তার দেশের কোনো ক্রেতা বাংলাদেশ থেকে রপ্তানি আদেশ প্রত্যাহার করবে না। সুইডেনের প্রধানমন্ত্রী স্টিভেন লোফভেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে ফোনালাপে বলেন, তার দেশের কোনো ব্র্যান্ড বাংলাদেশ থেকে রপ্তানি আদেশ প্রত্যাহার করে নেবে না। বছরে ৬৫ থেকে ৭০ কোটি ডলারের পোশাক রপ্তানি হয় দেশটিতে।
    বিভিন্ন দেশের সরকারি পর্যায়ে এ ধরনের পদক্ষেপের বাইরে ক্রেতা এবং ব্র্যান্ডগুলোর পক্ষ থেকে নতুন করে ক্রয় আদেশের প্রতিশ্রুতি পাওয়া গেছে। যুক্তরাজ্যভিত্তিক ব্র্যান্ড প্রাইমার্ক নতুন করে ৩৭ কোটি পাউন্ডের রপ্তানি আদেশ দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। করোনার প্রভাবে ১২ দেশে ব্র্যান্ডটির ৩৭৬টি শোরুম বন্ধ রয়েছে। আর্থিক ক্ষতির পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৬৫ কোটি পাউন্ড। তা সত্ত্বেও করোনা দুর্যোগকালে বাংলাদেশের পাশে থাকার এই প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। আগামী মৌসুমকে কেন্দ্র করে নতুন রপ্তানি আদেশ শুরু করার কথাও জানানো হয়েছে তাদের পক্ষ থেকে। জার্মানি ভিত্তিক বিশ্বখ্যাত ক্রীড়া পোশাক প্রস্তুতকারক ব্র্যান্ড পুমা বাংলাদেশে তাদের সরবরাহকারীদের পাশে থাকার ঘোষণা দিয়েছে। রপ্তানি আদেশ বাতিলের সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করা উল্লেখযোগ্য ব্র্যান্ডের তালিকায় রয়েছে এইচঅ্যান্ডএম, ইনডিটেক্স, ভি এফ, গ্যাপ, কিয়াবি, পিভিএইচ, বেস্টসেলার, টেসকো, জেসিপেনি, এলপিপির মতো বিখ্যাত প্রতিষ্ঠান।

    Facebook Comments Box

    বাংলাদেশ সময়: ১১:১০ অপরাহ্ণ | সোমবার, ০৪ মে ২০২০

    bankbimaarthonity.com |

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    রডের দাম বাড়ছে

    ১৩ জানুয়ারি ২০১৯

    Archive Calendar

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
    ১০১১১২১৩১৪
    ১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
    ২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
    ২৯৩০৩১  
  • ফেসবুকে ব্যাংক বীমা অর্থনীতি