শনিবার ২০ এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৭ বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বাংলাদেশ প্লাস্টিক পণ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ

  |   মঙ্গলবার, ২২ জানুয়ারি ২০১৯   |   প্রিন্ট   |   897 বার পঠিত

বাংলাদেশ প্লাস্টিক পণ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ

প্লাস্টিক বাংলাদেশের একটি সম্ভাবনাময় খাত। দেশে ও আন্তর্জাতিক বাজারে প্লাস্টিকের চাহিদা দিন দিন বাড়ছে। আগে দেশের তৈরি পোশাকসহ অনেক শিল্প-কারখানায় প্লাস্টিকজাতীয় পণ্য আমদানি করতে হতো। আজ বাংলাদেশ প্লাস্টিক পণ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ। দেশের চাহিদা পূরণের পর এখন বাংলাদেশের প্লাস্টিকজাতীয় পণ্য রফতানি করা হচ্ছে।

গতকাল রাজধানীর র্যাডিসন ব্লু ঢাকা ওয়াটার গার্ডেনে বাংলাদেশ প্লাস্টিক গুডস অ্যান্ড ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যান্ড এক্সপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশন (বিপিজিএমইএ) আয়োজিত চার দিনব্যাপী ১৪তম বাংলাদেশ ইন্টারন্যাশনাল প্লাস্টিক, প্যাকেজিং অ্যান্ড প্রিন্টিং ইন্ডাস্ট্রিয়াল ফেয়ারের সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি।

মন্ত্রী বলেন, ২০২১ সাল নাগাদ রফতানির পরিমাণ ৬ হাজার কোটি ডলারে উন্নীত করার লক্ষ্যমাত্রা রয়েছে সরকারের। এ লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে দেশের প্লাস্টিক খাতকে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখতে হবে।

বিপিজিএমইএ সভাপতি মো. জসিম উদ্দিনের সভাপতিত্বে সমাপনী অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন লুনা প্লাস্টিক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এএসএম কামাল উদ্দিন ও ওয়ার্কার্স ট্রেড অ্যান্ড মার্কেটিংয়ের প্রেসিডেন্ট জুডি ওয়াং। স্বাগত বক্তব্য রাখেন বিপিজিএমইএর জ্যেষ্ঠ সহসভাপতি গিয়াস উদ্দিন আহমেদ।

এবারের মেলায় বিশ্বের ১৯টি দেশের ৪৬০টি কোম্পানির ৭৮০টি প্রতিষ্ঠান অংশ নেয়। গত বছরের চেয়ে এবার অংশগ্রহণকারী প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা বেড়েছে ৬ দশমিক ৫ শতাংশ।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, দেশে এখন প্রায় ২৫ হাজার কোটি টাকা মূল্যের প্লাস্টিক পণ্য উৎপাদন ও বিক্রি হচ্ছে। বিভিন্ন খাতের মাধ্যমে প্লাস্টিক পণ্য রফতানি হচ্ছে ৩ হাজার কোটি টাকার। এছাড়া সরাসরি রফতানি হচ্ছে ১ হাজার কোটি টাকার। প্লাস্টিক পণ্য রফতানিতে বাংলাদেশের অবস্থান ১২তম। এ খাতে ১২ লাখের বেশি মানুষ কাজ করার সুযোগ পাচ্ছে। দেশের প্লাস্টিক খাতকে সরকার গুরুত্বপূর্ণ খাত হিসেবে বিবেচনা করছে।

টিপু মুনশি বলেন, দেশের প্লাস্টিক খাতকে গতিশীল করতে সরকার সব ধরনের সহযোগিতা করবে। এখন প্লাস্টিক পণ্য রফতানিতে ১০ শতাংশ হারে নগদ আর্থিক সহায়তা দেয়া হচ্ছে। দেশে এ মুহূর্তে মাথাপিছু পাঁচ-সাত কেজি প্লাস্টিক পণ্য ব্যবহার হচ্ছে। ২০৩০ সালে এর পরিমাণ দাঁড়াবে ৩৫ কেজি। এ লক্ষ্যমাত্রা সামনে রেখে আমাদের সক্ষমতা বাড়াতে হবে।

Facebook Comments Box
(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});

Posted ১০:৪৮ পূর্বাহ্ণ | মঙ্গলবার, ২২ জানুয়ারি ২০১৯

bankbimaarthonity.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

রডের দাম বাড়ছে
(11188 বার পঠিত)

আর্কাইভ ক্যালেন্ডার

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২
১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭২৮২৯৩০  
প্রধান সম্পাদক: মোহাম্মাদ মুনীরুজ্জামান
নিউজরুম:

মোবাইল: ০১৭১৫-০৭৬৫৯০, ০১৮৪২-০১২১৫১

ফোন: ০২-৮৩০০৭৭৩-৫, ই-মেইল: bankbima1@gmail.com

সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক কার্যালয়: পিএইচপি টাওয়ার, ১০৭/২, কাকরাইল, ঢাকা-১০০০।