• ৭ কেজি স্বর্ণসহ আটক মার্কিন নাগরিক শাহনাজ চৌধুরী ৩ দিনের রিমান্ডে

    বিবিএ নিউজ.নেট | ২১ এপ্রিল ২০২২ | ৪:২৫ অপরাহ্ণ

    ৭ কেজি স্বর্ণসহ আটক মার্কিন নাগরিক শাহনাজ চৌধুরী ৩ দিনের রিমান্ডে
    apps

     

    এবার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত মার্কিন নাগরিক শাহনাজ চৌধুরীর অন্তর্বাস থেকে ৬ কেজি ৮০০ গ্রাম ওজনের ৫৯টি স্বর্ণের বার উদ্ধারের মামলায় ৩ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন সিএমএম আদালত। ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ নুরুল হুদা চৌধুরীর আদালত হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে স্বর্ণসহ গ্রেফতার হওয়া আসামীকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

    বৃহস্পতিবার (২১ এপ্রিল) সংশ্লিষ্ট আদালতের সাধারণ নিবন্ধন শাখার দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা গণমাধ্যমকে এ তথ্য জানান। গত বুধবার আসামীকে আদালতে হাজির করে মামলার সুষ্ঠু তদন্তের স্বার্থে ১০ দিন করে রিমান্ডে নিতে আবেদন করেন তদন্তকারী কর্মকর্তা। পরে আদালত তদন্ত কর্মকর্তার আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে আসামীকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

    Progoti-Insurance-AAA.jpg

    গত ১৯ এপ্রিল (মঙ্গলবার) হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের ৭ নম্বর বোর্ডিং ব্রিজ থেকে যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিক শাহনাজ চৌধুরীকে প্রায় ৬ কেজি ৮০০ গ্রাম স্বর্ণসহ আটক করেন ঢাকা কাস্টম হাউজের কর্মকর্তারা।
    এমিরেটস এয়ারলাইনসের এক যাত্রীর মাধ্যমে বিমানবন্দর দিয়ে বিপুল পরিমাণ স্বর্ণ পাচার হতে পারে- এমন তথ্যের ভিত্তিতে ওই দিন অভিযান চালানো হয়। পরে ১৯ এপ্রিল সকাল ৮টা ৪০ মিনিটের দিকে এমিরেটস এয়ারলাইনসের ইকে-৫৮২ ফ্লাইটটি শাহজালাল বিমানবন্দরে এসে পৌঁছায়। এ সময় যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিক শাহনাজ চৌধুরীকে শনাক্ত করা হয়। তাকে প্রাথমিকভাবে জিজ্ঞাসাবাদের এক পর্যায়ে তিনি সবকিছু অস্বীকার করেন।


    বিমান বন্দর থানা পুলিশ গণমাধ্যমকে জানায়, শাহনাজ চৌধুরীর পাসপোর্ট তল্লাশি করে তার বিরুদ্ধে প্রায়ই বাংলাদেশে যাতায়াত করার তথ্য পাওয়া যায়। এরই ধারাবাহিকতায় সর্বশেষ গত ১৯ এপ্রিল স্বর্ণ পাচারের উদ্দেশে ৫৯ পিস স্বর্ণের বার তার শরীরে অন্তর্বাসে লুকিয়ে দুবাই থেকে আমিরাত এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইটে (ইকে-০৫৮২) ঢাকায় আসেন তিনি। এসময় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ঢাকা কাস্টমস হাউজের প্রিভেনটিপ কর্মকর্তারা শাহনাজ চৌধুরীকে আটক করেন। এরপর শাহনাজ চৌধুরীকে বিমানবন্দর থানায় সোর্পদ করা হয়।

    পরবর্তীতে কাস্টমসের সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা জহুরা খানম বাদী হয়ে শাহনাজ চৌধুরীর বিরুদ্ধে বিমানবন্দর থানায় স্বর্ণ চোরাচালান আইনে একটি মামলা দায়ের করেন। ঢাকা কাস্টমস হাউজের ডেপুটি কমিশনার সানোয়ারুল কবীর (প্রিভেনটিপ) জানান, স্বর্ণপাচার চক্রের সঙ্গে জড়িত অন্যন্য সদস্যদের শনাক্ত করার চেষ্টা করছে পুলিশ। শাহনাজ চৌধুরী দুবাই হয়ে আমেরিকা থেকে বাংলাদেশে আসেন। তার কাছ থেকে ৫৯টি স্বর্ণের বার উদ্ধার করা হয়। যার ওজন ৬ কেজি ৮০০ গ্রাম। যার বাজারমূল্য প্রায় পাঁচ কোটি টাকা। আরও জানা যায়, নোয়াখালী জেলার বাসিন্দা আসামী শাহনাজ চৌধুরী যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিক। বিমানবন্দর থেকে এসব স্বর্ণবার নিয়ে রাজধানীর ধানমন্ডিতে তার এক আত্মীয়ের বাসায় যাওয়ার কথা ছিল। কিন্ত তার আগেই ঢাকা কাস্টমস কর্মকর্তারা তাকে আটক করে। এ ঘটনায় তার বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করা হয়। ওই মামলায় আদালত তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

     

     

    Facebook Comments Box

    বাংলাদেশ সময়: ৪:২৫ অপরাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, ২১ এপ্রিল ২০২২

    bankbimaarthonity.com |

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    ১৬ মে ২০১৯

    বিজ্ঞাপন

    ১৯ জানুয়ারি ২০১৯

    বিজ্ঞাপন

    ১০ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

    বিজ্ঞাপন

    ১০ মার্চ ২০১৯

    Archive Calendar

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩১৪১৫
    ১৬১৭১৮১৯২০২১২২
    ২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
    ৩০৩১  
  • ফেসবুকে ব্যাংক বীমা অর্থনীতি